একটি নিষ্পাপ প্রাণের অপমৃত্যু!

বনলতা নিউজ ডেস্ক.বনলতা নিউজ ডেস্ক.
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:২০ PM, ০১ জুন ২০২০

বিশেষ প্রতিবেদক 

কি অপরাধ ছিল? এখানে কি ভ্রুন তার নিজের ভাগ্য তৈরি করতে পেরেছে? ভ্রুনটিকে তার জন্মাবার আগেই হত্যা করা হলো। তার জবাব কে দেবে?

ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মাধনগর গ্ৰামে। সোমবার (১ জুন) নলডাঙ্গার মাধনগর ডিগ্রী কলেজের পূর্ব পার্শ্বের একটি পুকুর থেকে ৪-৫ মাস বয়সী অজ্ঞাত একটি ভ্রুন শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

হায়রে মানবতা কি অপরাধ ছিল অজ্ঞাত এই ভ্রুনটির! কি সমস্যা ছিল তাকে না মেরে পালন করলে। সমাজের ভয়ে যদিও লালন পালন না করতে পারতো, পরিচয় গোপন রেখে কোন এক এতিম খানায় তো দিয়ে আসতে পারতো। তারপরও বেঁচে থাকতে পারতো বাচ্চাটি।

ক্ষণিকের সুখ আর অবৈধ দেহের যৌন তৃষ্ণা মেটাতে এই পৃথিবীতে যে শিশুর জন্ম দিয়েছো অপ্রত্যাশিত ভাবে, কেন তার পরিচয় দিতে আজ তোমার মান সম্মানে লাগে?
আর এ জন্যেই কি তার স্থান পুকুর, রাস্তা বা পরে থাকা ডাস্টবিনে? অবৈধ সম্পর্কের কারণে অনেক শিশু ভুমিষ্ঠ হওয়ার পর অকালে প্রাণ হারায় এবং নিষ্পাপ প্রাণগুলোর সমাপ্তি ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে স্থানীয়রা উপজেলার মাধনগর ডিগ্রী কলেজের পূর্ব পার্শ্বের পুকুরে একটি ভ্রুণ শিশুর মরদেহ ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ ওই অজ্ঞাত ভ্রুণ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে।
নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, এটি একটি অপরিপক্ক শিশুর ভ্রুণ। শিশুটির বয়স আনুমানিক ৪-৫ মাস হতে পারে। ভ্রুণ শিশুটির গোপনে অবৈধ গর্ভপাত কিনা তা তদন্ত না করে নিশ্চিত করে কোন কিছু বলা যাবে না। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
ঘটনাটি নিয়ে জনমনে এক চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এস এম ফকরুদ্দিন ফুুুটু

আপনার মতামত লিখুন :