রাজশাহীর সেই ৩৩ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার ৩

বনলতা নিউজ ডেস্ক.বনলতা নিউজ ডেস্ক.
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:০২ AM, ২০ জুন ২০২০

ফজলুল করিম রাজশাহী প্রতিদেক.

রাজশাহী নগরীতে বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) দুপুরে ৩৩ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনার পর রাতে ভিভো শো-রুমের তিন কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার (১৯ জুন) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। আসামিদের আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। পুলিশ ৩২ লাখ টাকা উদ্ধার করেছে।

ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছেন ভিভো শো-রুমের কর্মচারী নগরীর নওদাপাড়া এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান ফয়সাল (২৬), শো-রুমের ম্যানেজার গোদাগাড়ীর পলাশি এলাকার আক্তার হোসেনের ছেলে জাফর ইকবাল (২৮) ও কর্মচারী নগরীর উপকণ্ঠ নওদাপাড়া এলাকার দুলাল হোসেনের ছেলে তাইজুল ইসলাম ডলার (২৪)।

তবে পুলিশ বলছে ছিনতাইয়ের মূল পরিকল্পনাকারী ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত মোটরসাইকেলের চালক আরিফুল ইসলাম ওরফে ডলারকে (২৪) এখন পর্যন্ত গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। একইসঙ্গে যার বাড়িতে ছিনতাইয়ের ৩২ লাখ টাকা লুকিয়ে রাখা ছিল সেই অহিদুল ইসলামকেও (২২) গ্রেফতার করা যায়নি। তবে তাদের ধরতে মাঠে কাজ করছে পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) বেলা পৌনে একটার দিকে রাজশাহী নগরীর অলকার মোড়ের কাছে ভিভো শো-রুমের দুই জন কর্মচারী বেলা পৌনে একটার দিকে দুইটি ব্যাগে করে প্রায় ৩৮ লাখ টাকা ব্যাংকে জমা দিতে নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে তারা সাজানো ছিনতাইয়ের শিকার হন। যেখানে ৩৩ লাখ টাকা ছিনতাই হয় বলে তারা দাবি করেন। অভিযোগ পেয়ে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ টাকাগুলো উদ্ধারে মাঠে নামে। ওইদিনই রাত সাড়ে আটটার দিকে নগরীর উপকণ্ঠ কাশিয়াডাঙ্গা এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৩২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। বাকি এক লাখ টাকা মোটরসাইকেল চালক আরিফুল ইসলাম ডলারের কাছে আছে বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছে গ্রেফতার তিন জন। চালক ডলার ও যে বাড়িতে টাকা পাওয়া গেছে সেই অহিদুল ইসলাম এই দুই জন এখন পর্যন্ত পলাতক আছে।

এই টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় নগরীর অলোকার মোড়ের হ্যালো রাজশাহী-২ মোবাইল ফোনের শো-রুমের প্রোপাইটর অঞ্জন কুমার রায় বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারুণ চন্দ্র বর্মণ জানান, ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত মোটরসাইকেলের চালক আরিফুল ইসলাম ওরফে ডলার (২৪) ও ভিভো শো-রুমের কর্মচারী নগরীর নওদাপাড়া এলাকার মিজানুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান ফয়সাল (২৬)। গ্রেফতারকৃতদের আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ জুন) বেলা ১১টায় রাজশাহী মহানগর পুলিশের আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান বোয়ালিয়া জোনের উপপুলিশ কমিশনার সাজিদ হাসান। সংবাদ সম্মেলনে বোয়ালিয়া থানার ওসিসহ নগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :