তালাকের পরও জোরপূর্বক ঘরে উঠেছেন এক গৃহবধু

বনলতা নিউজ ডেস্ক.বনলতা নিউজ ডেস্ক.
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:১৯ AM, ১১ জুলাই ২০২০

বনলতা নিউজ ডেস্ক.

তালাকের পরও জোরপূর্বক ঘরে উঠেছেন এক গৃহবধ (২২)। নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর সদরের দক্ষিণ নারিবাড়ি মহল্লায় ওই ঘটনা ঘটেছে। তালাকের আগে ওই গৃহবধূ তার বাবা বাড়িতে ছিলেন। তালাকের নোটিশ পেয়ে আবার স্বামীর বাড়িতে উঠেছেন।

আব্দুল মমিন (২৭) জানান- পারিবারিক কলহের জেরে প্রায় আটমাস আগে তার স্ত্রী বাবার বাড়ি চলে যান। এরমধ্যে বাব বার বাড়িতে আসার কথা বললেও তারা কর্ণপাত করেননি। উপরন্ত সংসার না করার কথা জানান। একারণে তিনি তার স্ত্রীকে আদালতের মাধ্যমে তালাক দিয়েছেন। অথচ তালাক নোটিশ পাওয়ার পর ৪জুলাই শশুর বাড়ির লোকজন জোড়পূর্বক তার স্ত্রীকে তার বাড়িতে রেখে গেছেন।

তালাকপ্রাপ্ত ওই গুহবধুর বাবার জানান- পারিবারিক কলহের জেরে তার মেয়ে স্বামীর থেকে প্রায় আট মাস আগে তার বাড়িতে আসেন। এরমধ্যে জামাই কোন খোঁজখবর নেননি। হঠাৎ করেই তালাকের গুজব রটিয়েছেন। তারা কোন তালাক নোটিশ পাননি।

তিনি জানান- বিষয়টি নিয়ে থানার দাড়স্থ হওয়ার পর ওসি তার মেয়েকে স্বামীর বাড়িতে রেখে আসতে বলেন। একারণে মেয়েকে স্বামীর বাড়ি রেখে আসা হয়েছে।

গুরুদাসপুর খানার ওসি মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন- মেয়েটির বাবা থানায় এসেছিলেন। বিষয়টি নিয়ে অনুশন্ধান করা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :