একজন সাধারণ মানুষের অসাধারণ গল্প!

Md MagemMd Magem
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:২৬ PM, ১৭ অগাস্ট ২০২০

প্রভাষক মো.মাজেম আলী মলিন
আমাদের সমাজে নানা শ্রেণি পেশার নানা মতের মানুষ রয়েছে। এমন কিছু মানুষ আছেন যাদেরকে খুব কাছ থেকে না দেখলে বুঝায় যায় না তাদের ব্যক্তিত্ব আর মনের উদারতা কত গভীর। সুন্দর মন আর ভালো ব্যক্তিত্ব থাকার কারণে একজন মানুষ আরেকজন মানুষের কাছে আকর্ষণীয় হয়ে উঠেন।  কিছু মানুষ অন্যের গেল্লা গাওয়া নিয়ে ব্যস্ত কিছু মানুষ সমাজের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন অবিরত। তেমনি একজন মানুষের কথা আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। তিনি আমাদের সকলের প্রিয় সাধারনত মানুষের মতই অতি ভদ্র শান্তি প্রিয় সহজ সরল কিন্তু প্রাণ উজ্জ্বল মেধাবী একজন তরুণ। তিনি হলেন উত্তর বংগের সবচেয়ে প্রবীণ নেতা গুরুদাসপুর বড়াইগ্রামের স্থানীয় সাংসদ নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আব্দুল কুদ্দুসের কনিষ্ঠ পুত্র আসিফ আবদুল্লাহ বিন কুদ্দুস শোভন। মুলত তিনি লেখাপড়া (সিএ) শেষ করে ব্যবসা বানিজ্য করছেন আর মানব সেবায় ব্রত রয়েছেন।

সুন্দর মানসিকতা আর সৎ কর্মের মাধ্যমেই মানুষ মানুষের মাঝে স্মরণীয় হয়ে বেঁচে থাকেন। এমন কাউকেই সবাই পছন্দ করেন যিনি কারো দুঃসময়ে দুহাত বাড়িয়ে দিতে কুণ্ঠাবোধ করেন না, কোন রকম প্রাপ্তির প্রত্যাশা ছাড়াই. অসহায়দের পাশে দাড়ান। আর এমনই একজন সুন্দর সাদা মনের মানুষ,আমাদের সবার প্রিয় শোভন। তার মত উদার মনের মানুষ বর্তমান সময়ে খুবই বিরল। তার অসাধারণ  আচরণ,অতিথীয়তাও সবাইকে মুগ্ধ করে।
তার মত সাদা মনের মানুষ এর কথা লিখে কি আর শেষ করতে পারব? এক কথায় না। তবুও কেন যেন মাথার সমস্যা থাকা সত্বেও না লিখে পারছিনা। এত ছোট মানুষ হয়েও শত ব্যাস্তার মাঝেও তার মাথায় রয়েছে কে কোথায় আছে কেমন আছে তার খোজ খবর নিতেও ভুলেন না এক মুহুর্তের জন্যেও। শুধু এটাই না ব্যস্ততার মাঝেও মানবিক কাজে তার জুড়ি মেলা ভার।
আজ এই মহামারী পরিস্থিতিতে শোভন গুরুদসসপুর বড়াইগ্রামের সকল অবহেলিত মানুষের পাশে দারিয়েছেন।করোনা ভাইরাসের ভয়ে সারা দেশ যেখানে আতংকের ভিতরে আছে।   কেউ ঘড় থেকে বের হয় না আর সেই সময় শোভন ঘুরছেন মানুষের দারে দারে। মাক্স, সাবান, খাদ্যসামগ্রী বিতরণ সহ দুই উপজেলার রাস্তায় জীবানু নাশক ছিটানো। আমার নিজের চোখে দেখা শুধু রাস্তা ঘাটে নয় শোভন এলাকার সকল দরিদ্র মানুষের বাসায় গিয়ে নিজ হাতে মাক্স ও সাবান বিতরন করছে নিজের সাধ্য অনুযায়ী। শুধু আজ নয় সে তীব্র শীতের মাঝেও সকল দরিদ্র মানুষের বাড়িতে এবং যাদের ঘড় বাড়ি নেই পথে বসবাস করে তাদের কে শীতে কম্বল বিতরন,অসহায় নারীদের মাঝে শাড়ী বিতরণ করেছেন। তা ছাড়া দরিদ্র বাচ্চাদের পড়াশোনা খরচ বহন করে চলছেন। উপজেলার  হত দরিদ্র মানুষকে  বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে আসছেন। পরিশেষে মহান আল্লাহ তায়ালা যেন তাকে সুস্থ্যতা দান করেন সেই সাথে৷ আরো বেশী বেশি ভাল কাজ করার তৌফিক দান করেন।

আপনার মতামত লিখুন :