চুরির অভিযোগে রাজমিস্ত্রীকে পিটিয়ে জখম আটক -২

বনলতা নিউজ ডেস্ক.বনলতা নিউজ ডেস্ক.
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৩৭ AM, ১৯ অগাস্ট ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ভ্যান চুরির অভিযোগে ছাবলু সরদার (৩৮) নামের এক রাজমিস্ত্রীকে বেধরক পিটিয়ে যখম করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে গুরুদাসপুর পৌর সদরের খামারনাচকৈড় মহল্লায় ওই ঘটনা ঘটেছে। আহত ছাবলুর ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
এ ঘটনায় আহত ছাবলু সরদারের স্ত্রী হেলেনা বেগম বাদী হয়ে গুরুদাসপুর থানায় আবুহান সরদার,জামাল সরদার, নায়েব সরদার, আয়ুব সরদারসহ ৬জনকে অভিযুক্ত করে গুরুদাসপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আহত ছাবলু সরদার ও অভিযুক্তদের বাড়ি একই মহল্লায়। তারা পরস্পর আত্মীয়।
আহত ছাবলু সরদারের স্ত্রী হেলেনা বেগম জানান, ভ্যান চুরির মিথা অভিযোগ দিয়ে তার স্বামীকে তার দুই ছোট ছেলে মেয়ের সামনে রশি দিয়ে বেধে বেধরক পিটিয়ে যক্ষম করেছে। তিনি অভিযুক্তদের বিচার দাবি করেছেন।
তিনি বলেন- স্বামী পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী। স্বামীর উপর্জনের টাকা দিয়েই চলে অসুস্থ শ্বশুরের চিকিৎসা। এছাড়া দুই ছেলে-মেয়ের পড়াশোনা ও সংসারের খরচ চলে সেই আয়েই। পরিবারের একমাত্র উপর্জনক্ষম ব্যাক্তিটিকে পিটিয়ে যখম করায় তারা অসহায় হয়ে পড়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানাগেছে- অভিযুক্তরা রাজমিস্ত্রী ছাবলুকে পাটের রশি দিয়ে বেঁধে কাঠের বাটাম ও লোহার জিআইপাইপ দিয়ে বেধরক পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে।
অভিযুক্ত আবুহানের স্ত্রী মোছাঃ রেবেকা পারভীন জানান, প্রতিবেশি ছাবলু দেবরের ভ্যান চুরি করেছে এমন অভিযোগে তার স্বামীসহ অন্যরা সামান্য মারধর করেছেন। অন্য অভিযুক্তরা পলাতক থাকায় তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মোজাহারুল ইসলাম সতত্যা নিশ্চিত করে বলেন, আহত ছাবলুর স্ত্রীর দায়ের করা অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযুক্তদের মধ্যে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :