বঙ্গ বিডির ওয়ার্কশপ থেকে ‘ইউটিউব কমিউনিটি’

Md MagemMd Magem
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:২২ PM, ০৬ অক্টোবর ২০২০

চট্টগ্রামের প্রায় ২০ জন ইউটিউবারের সম্মিলিত একটি ম্যাসেঞ্জার গ্রুপের মাধ্যমেই শুরু হয় চিটাগাং ইউটিউব কমিউনিটি। প্রথমে ছোট পরিসরে শুরু হলেও পরে ছড়িয়ে পড়ে জেলাব্যাপী।

ইউটিউবারদের প্রথম সৃষ্টি ‘বঙ্গ বিডি’ নামক একটি প্ল্যাটফর্ম থেকে চট্টগ্রামে একটি ইউটিউব ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়। সেই থেকেই শুরু হয় চিটাগাং ইউটিউব কমিউনিটির যাত্রা। ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে হয় এই কমিউনিটির প্রথম অফিশিয়াল মিটিং, যেখানে উপস্থিত হন চট্টগ্রামের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রায় ৪৫টি ইউটিউব চ্যানেলের মোট ৬৭ জন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর

এতে বর্তমানে যুক্ত আছে প্রায় ২০০টিরও বেশি ইউটিউব চ্যানেল এবং ৩০০ জনেরও অধিক কন্টেন্ট ক্রিয়েটর। এই কমিউনিটির সঙ্গে যুক্ত সবাই চট্টগ্রামের বাসিন্দা। তাদের মধ্যে কেউ কাজ করছেন হাস্যরস সমৃদ্ধ কৌতুক কন্টেন্ট নিয়ে, কেউ কাজ করেন সামাজিক সচেতনতা নিয়ে, আবার কেউ করেন ব্লগ।

চিটাগাং ইউটিউব কমিউনিটি চট্টগ্রামের ইউটিউব কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের মধ্যে সমন্বয় তৈরি করার চেষ্টা করে। কমিউনিটির কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা প্রত্যেকে একে-অপরের কাজে সহযোগিতা থেকে শুরু করে ইউটিউব সম্পর্কিত বিভিন্ন সঠিক পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এরই মধ্যে কমিউনিটির সমন্বয়ে তৈরি করা হয় একটি ইউটিউব চ্যানেল, যেখানে প্রকাশ হয় সব কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের তৈরিকৃত বিভিন্ন ক্যাটাগরির কন্টেন্ট।

এ কমিউনিটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সায়মন আলী তুষার প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে বলেন, ‘কমিউনিটি না থাকলে আমাদের ইউটিউবারদের মধ্যে যোগাযোগ রক্ষা করা কঠিন হয়ে যেত। প্রত্যেক কন্টেন্ট ক্রিয়েটরের জন্য অন্য কন্টেন্ট ক্রিয়েটরের সাপোর্ট খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেই সাপোর্টটি পেতে হলে কমিউনিটির প্রয়োজন অপরিহার্য। তাছাড়া কাজের ক্ষেত্রে সহযোগিতা পাওয়ার জন্য কমিউনিটির ভূমিকা অপরিসীম।’

এ কমিউনিটির সঙ্গে যুক্ত প্রায় সবাই তরুণ এবং শিক্ষার্থী। কমিউনিটির সবাই চেষ্টা করেন ইউটিউব থেকে অশ্লীল এবং দেশবিরোধী কন্টেন্ট বন্ধ নিশ্চিত করতে। কন্টেন্ট ক্রিয়েট করার পাশাপাশি কমিউনিটির সবাই বিভিন্ন চ্যারিটিমূলক কাজও করে থাকেন তাদের পক্ষ থেকে।

ইতোমধ্যে কমিউনিটির অনেকেই ইউটিউব ক্যারিয়ারে ব্যক্তিগতভাবে সফলতা অর্জন করেছেন। সায়মন আলী তুশার একজন কমিউনিটির সদস্য। তিনি বলেন, ‘সবাই নিজের কষ্ট করে সফলতা অর্জন করেছেন। কমিউনিটি শুধু একটি সাপোর্ট মাত্র। তোমরা নিজের লক্ষ্য ঠিক রাখো। ক্যামেরা, টাকা-পয়সা ছাড়াও শূন্য থেকে অনেক কন্টেন্ট ক্রিয়েটর সফলতা অর্জন করেছেন। তাই কখনো হতাশ হবে না। ইনশাআল্লাহ চেষ্টা সফল হবেই।’

আপনার মতামত লিখুন :