বড়াইগ্রামে স্বামী ভরণপোষণ না দেয়ায় প্রথম স্ত্রীর আত্নহত্যা

Md MagemMd Magem
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৫৭ AM, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি
নাটোরের বড়াইগ্রামে স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করার পর থেকে ঠিকমত ভরণপোষণ না দেয়া এবং অত্যাচার নির্যাতন করায় ক্ষোভে অভিমানে ফিরোজা বেগম (৪৫) নামে এক গৃহবধু গলায় দড়ি দিয়ে ফঁাস নিয়ে আত্নহত্যা করেছেন। শনিবার উপজেলার নগর ইউনিয়নের মহানন্দগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ফিরোজা বেগম মহানন্দগাছা গ্রামের হযরত আলীর প্রথম স্ত্রী।
পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, হযরত আলী ৫-৬ বছর আগে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এরপর থেকে প্রথম স্ত্রী ও তার সন্তানকে ঠিকমত ভরণপোষণ দিতেন না। এমনকি তুচ্ছ বিষয় নিয়ে প্রায়ই ফিরোজা বেগমকে অত্যাচার নিপীড়ন করতেন। এ অবস্থায় ফিরোজা বেগম অন্যের বাড়িতে ঝি’য়ের কাজ করে নিজের ও তিন সন্তানের আহার জোটাতেন। শুক্রবার ফিরোজা বেগমের সঙ্গে এসব নিয়ে হযরত আলীর ঝগড়া-বিবাদ হয়। পরে শনিবার সকালে সবার অজান্তে রান্না ঘরের তীরের সঙ্গে দড়ি বেঁধে গলায় ফঁাস নিয়ে তিনি আত্নহত্যা করেন।
এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক সানোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :