দেওবন্দ মাদ্রাসার নায়েবে মোহতামিম আল্লামা আব্দুল খালেক সাম্ভলীর ইন্তেকালে আমিরে হেফাজতের শোক প্রকাশ

মোস্তাকিম জনিমোস্তাকিম জনি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৩৪ PM, ৩১ জুলাই ২০২১

এস এম সাইফুল ইসলাম (প্রতিনিধি)

এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,ভারতের ঐতিহ্যবাহী বিখ্যাত ইলমের ঘাটি দারুল উলূম দেওবন্দ এর নায়েবে মুহতামিম,মুহাদ্দিস ও আরবী সাহিত্যিক আল্লামা আব্দুল খালেক সাম্ভলী’র ইন্তেকালে শোক প্রকাশ করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ’র আমীর ও হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষা পরিচালক শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

আজ শনিবার সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক বার্তায় এ শোক প্রকাশ করেন তিনি।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন,আল্লামা আব্দুল খালেক সাম্ভলী দীর্ঘদিন যাবত বিশ্ববিখ্যাত ইসলামী বিদ্যাপীঠ দারুল উলুম দেওবন্দের নায়েবে মুহতামিম হিসেবে অত্যন্ত সুনামের সাথে দায়িত্ব আঞ্জাম দিয়েছেন। ইলমী ও বিনয়ী কথাবার্তায় তিনি সবাইকে খুব সহজেই মুগ্ধ করতে পারতেন। আল্লামা আব্দুল খালেক সাম্ভলী রহ. একজন মানব দরদি, নম্র-ভদ্র, সরল মনের অধিকারী ও প্রতিভাবান ছিলেন।তিনি দেশ-বিদেশে ইলমে নববীর আলো বিতরণ করে গেছেন।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, তাঁকে উপমহাদেশের একজন শীর্ষ আরবী সাহিত্যিক উল্লেখ করে বাবুনগরী বলেন,আল্লামা সাম্ভলী একজন শীর্ষ আরবী সাহিত্যিক ও সুবিখ্যাত মুনাজির ছিলেন।সারা বিশ্বে তাঁর হাজার হাজার তালিবুল ইলম আছে।তাঁর মতো একজন বিদগ্ধ আলেমের ইন্তেকালে পৃথিবী একজন যোগ্য জ্ঞান সাধককে হারাল।

বাবুনগরী আরও বলেন, তিনি পৃথিবীর বহু দেশে দাওয়াতী সফর করেছেন। বাংলাদেশেও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বহু ইলমী সেমিনার,ওয়াজ মাহফিল ও মহাসম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছেন।তাঁর দরদমাখা ও হৃদয়গ্রাহী বয়ান ছিল দ্বীন প্রচারের এক অনন্য উপাদান।

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী আল্লামা সাম্ভলীর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবদেনা জ্ঞাপন করেন এবং মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে তাঁর মর্যাদা বৃদ্ধির দোয়া করেন।

আপনার মতামত লিখুন :