বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গুরুদাসপুরে নিখোঁজের দুইদিন পর মাঝির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

  • Reporter Name
  • Update Time : ০২:২৮:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২১
  • ৪১ Time View

গুরুদাসপু (নাটোর) প্রতিনিধি.

নিখোঁজের দুইদিন পর আরজু (২৭) নামের এক মাঝির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার গুরুদাসপুর উপজেলার বিলশা বিল থেকে সকাল ৯টার দিকে পুলিশ লাশটি করেছে। এঘটনায় কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি। তবে তিনজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের স্বজনেরা জানান, নিহত ওই মাঝির বাড়ি পাশ^বর্তী সিংড়া উপজেলার চামারি ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের কদম আলীর ছেলে। নিহত আরজু পেশায় নৌকার মাঝি ছিলেন। বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) বিকালে চলনবিল ভ্রমণের উদ্দেশ্য অপরিচিত কয়েকজনের সাথে নৌকা নিয়ে স্থানীয় বিলদহর বাজার থেকে বের হন। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাত গভির হলেও আরজু ফেরেননি। একপর্যায়ে স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয়দের দেওয়া খবরে শনিবার সকালে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ গুরুদাসপুরের খুবজিপুর ইউনিয়নের বিলশা বিল থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে। নিহত আরজুর হাতের আঙ্গুল কাটা, গলায় এবং ঘারে কোপানোর চিহৃ রয়েছে। আরজুর নৌকাতেও রক্তের দাগ লেগেছিল।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, নিহত আরজু মাঝির লাশটি উদ্ধার করে শনিবার বিকালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে আরজুকে হত্যা করা হয়েছে এমন ধারণা করা হচ্ছে। তাছাড়া এই ঘটনার রহস্য উদঘাটনে সিংড়ার আনন্দনগর গ্রামের আরিফ ও এনতাজ এবং কৃষ্ণনগর গ্রামের জসমতকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তবে এঘটনায় এখনো মামলা দায়ের হয়নি।

Tag :
About Author Information

Daily Banalata

Popular Post

গুরুদাসপুরে নিখোঁজের দুইদিন পর মাঝির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

Update Time : ০২:২৮:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২১

গুরুদাসপু (নাটোর) প্রতিনিধি.

নিখোঁজের দুইদিন পর আরজু (২৭) নামের এক মাঝির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার গুরুদাসপুর উপজেলার বিলশা বিল থেকে সকাল ৯টার দিকে পুলিশ লাশটি করেছে। এঘটনায় কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি। তবে তিনজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের স্বজনেরা জানান, নিহত ওই মাঝির বাড়ি পাশ^বর্তী সিংড়া উপজেলার চামারি ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের কদম আলীর ছেলে। নিহত আরজু পেশায় নৌকার মাঝি ছিলেন। বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) বিকালে চলনবিল ভ্রমণের উদ্দেশ্য অপরিচিত কয়েকজনের সাথে নৌকা নিয়ে স্থানীয় বিলদহর বাজার থেকে বের হন। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাত গভির হলেও আরজু ফেরেননি। একপর্যায়ে স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয়দের দেওয়া খবরে শনিবার সকালে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ গুরুদাসপুরের খুবজিপুর ইউনিয়নের বিলশা বিল থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে। নিহত আরজুর হাতের আঙ্গুল কাটা, গলায় এবং ঘারে কোপানোর চিহৃ রয়েছে। আরজুর নৌকাতেও রক্তের দাগ লেগেছিল।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, নিহত আরজু মাঝির লাশটি উদ্ধার করে শনিবার বিকালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে আরজুকে হত্যা করা হয়েছে এমন ধারণা করা হচ্ছে। তাছাড়া এই ঘটনার রহস্য উদঘাটনে সিংড়ার আনন্দনগর গ্রামের আরিফ ও এনতাজ এবং কৃষ্ণনগর গ্রামের জসমতকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তবে এঘটনায় এখনো মামলা দায়ের হয়নি।