সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার বিকল্প নেই-এ্যড.কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৫:২৯:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
  • ৭০ Time View

প্রভাষক মোঃ মাজেম আলী মলিন.

‘১৫ আগস্টের সেই শোককে শক্তিতে পরিনত করেছি। এখন সময় শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী করে স্বাধীন ভূ-খন্ডের অভুতপূর্ব উন্নয়ন করা। হচ্ছেও তাই। সমুদ্র জয়, পদ্মা সেতু, মেট্টোরেল, কর্ণফুলি টার্নেল, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র। কি হয়নি…! উন্নয়নের এই মহাযাত্রা চলমান রাখতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। দলকে সুসংগঠিত করতে হবে।’ যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি এড. কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে এসব কথা বলেন।

মুক্তি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করছেন। আমাদেরও উচিৎ এই ধারা অব্যহত রাখতে স্ব স্ব অবস্থান থেকে আত্মনিয়োগ করা। ৭৫ এ বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করে কালো অধ্যায় তৈরি করা হয়েছিল। বাংলার মাটি থেকে স্বাধীনতার স্মৃতি চিহৃ মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে সেই দিবা স্বপ্ন পূরণ হয়নি। বাংলার মানুষ তা হতে দেয়নি।

 


গুরুদাসপুরের মশিন্দা ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে¡ অনুষ্ঠিত শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে ভার্চুয়াল বক্তব্যে দেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস।
সাংসদ আব্দুল কুদ্দুস বলেন, ঘাতকেরা বার বার সেই আগস্টেই বাঙালী জাতীকে হত্যা করতে চেয়েছে…! ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আ’লীগের বহু নেতা-কর্মী প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন অনেকেই। আহতদের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা দেওয়া হয়নি। সেদিনের সেই ভয়াল হামলা থেকে শেখ হাসিনা রক্ষা পেয়েছিলেন। শেখ হাসিনার হাত ধরে স্বাধীন বাংলা এখন আপন ঠিকানায় পৌঁছেছে। এই দেশে আর কোনো জঙ্গিবাদের কার্যক্রম চলতে দেওয়া হবেনা।

সভার সার্বিক ব্যাবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রভাষক মো. মোস্তাফিজুর রহমান। অন্যন্যদের মধ্যে সভায় বক্তৃতা করেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আলাল শেখ, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বিপ্লব প্রমূখ।

সোমবার (৩০ আগস্ট) বিকালে মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ওই শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলার ৬ টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুর রহিম মোল্লা, রবিউল করিম, পৌর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রাজকুমার কাশি, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মান্নান খলিফা,পৌর আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সবুজ,গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান খলিফা, গুরুদাসপুর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মাসুদ, প্রভাষক নাসরিন সুলতানা রুমা, এমপি পুত্র আসিফ আব্দুল্লা বিন কুদ্দুস শোভন, গুরুদাসপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুভাশিষ কবীর গুরুদাসপুর পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেনসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Tag :
About Author Information

Daily Banalata

Popular Post

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার বিকল্প নেই-এ্যড.কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি

Update Time : ০৫:২৯:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১

প্রভাষক মোঃ মাজেম আলী মলিন.

‘১৫ আগস্টের সেই শোককে শক্তিতে পরিনত করেছি। এখন সময় শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী করে স্বাধীন ভূ-খন্ডের অভুতপূর্ব উন্নয়ন করা। হচ্ছেও তাই। সমুদ্র জয়, পদ্মা সেতু, মেট্টোরেল, কর্ণফুলি টার্নেল, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র। কি হয়নি…! উন্নয়নের এই মহাযাত্রা চলমান রাখতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। দলকে সুসংগঠিত করতে হবে।’ যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি এড. কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে এসব কথা বলেন।

মুক্তি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করছেন। আমাদেরও উচিৎ এই ধারা অব্যহত রাখতে স্ব স্ব অবস্থান থেকে আত্মনিয়োগ করা। ৭৫ এ বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করে কালো অধ্যায় তৈরি করা হয়েছিল। বাংলার মাটি থেকে স্বাধীনতার স্মৃতি চিহৃ মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে সেই দিবা স্বপ্ন পূরণ হয়নি। বাংলার মানুষ তা হতে দেয়নি।

 


গুরুদাসপুরের মশিন্দা ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে¡ অনুষ্ঠিত শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে ভার্চুয়াল বক্তব্যে দেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস।
সাংসদ আব্দুল কুদ্দুস বলেন, ঘাতকেরা বার বার সেই আগস্টেই বাঙালী জাতীকে হত্যা করতে চেয়েছে…! ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আ’লীগের বহু নেতা-কর্মী প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন অনেকেই। আহতদের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা দেওয়া হয়নি। সেদিনের সেই ভয়াল হামলা থেকে শেখ হাসিনা রক্ষা পেয়েছিলেন। শেখ হাসিনার হাত ধরে স্বাধীন বাংলা এখন আপন ঠিকানায় পৌঁছেছে। এই দেশে আর কোনো জঙ্গিবাদের কার্যক্রম চলতে দেওয়া হবেনা।

সভার সার্বিক ব্যাবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রভাষক মো. মোস্তাফিজুর রহমান। অন্যন্যদের মধ্যে সভায় বক্তৃতা করেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আলাল শেখ, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বিপ্লব প্রমূখ।

সোমবার (৩০ আগস্ট) বিকালে মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ওই শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলার ৬ টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুর রহিম মোল্লা, রবিউল করিম, পৌর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রাজকুমার কাশি, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মান্নান খলিফা,পৌর আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সবুজ,গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান খলিফা, গুরুদাসপুর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মাসুদ, প্রভাষক নাসরিন সুলতানা রুমা, এমপি পুত্র আসিফ আব্দুল্লা বিন কুদ্দুস শোভন, গুরুদাসপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুভাশিষ কবীর গুরুদাসপুর পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেনসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।