বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গুরুদাসপুরের মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার বিদায় অনুষ্ঠান

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৩:৪২:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ৮৬ Time View

গুরুদাসপুর প্রতিনিধি.

যেতে নাহি দিব হায় ,তবু যেতে দিতে হয়, তবুও চলে যায় কবির এই আকুতিটাই বারবার মনে পরছিল গুরুদাসপুরের চৌকস ও প্রতিভািবান শিক্ষা অফিসার মোঃ হাফিজুর রহমানের বিদায় বেলায়।

আজ ৮ সেপ্টেম্বর বৃস্হপতিবার সকাল ১১টায় মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের হল রুমে ওই বিদায়ী সভার আয়োজন করা হয়। এতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ তমাল হোসন উপস্থিত থেকে তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেন।

এসময় গুরুদাসপুর উপজেলার সকল কলেজ ও মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানগনসহ সাংবাদিক ও নানা শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান জানান,দীর্ঘ ১৫ বছর গুরুদাসপুরে চাকুরী করেছি। কারো মনে কোন কষ্ট পেয়ে থাকলে ক্ষমা সু্ন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। বলেই তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পরেন। পরিশেষে উপস্থিত সকলের কাছে দোয়া কমনা করেন এবং সকলের মঙ্গল ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিদায় নেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তবে ইউএনও তমাল হোসেন বলেন, হাফিজুর রহমান একজন কর্মঠ সৎ এবং যোগ্য লোক ছিলেন। তার আন্তরিক প্রচেষ্টায় শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। আমরা তার সফলতা কামনা করছি।এছাড়া  বিদায় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা বক্তব্য রাখেন। অবশেষে ফুল দিয়ে বিদায় সংর্বধনা মুহুর্তটাকে স্বরনীয় করে রাখা হয়।

Tag :
Popular Post

গুরুদাসপুরের মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার বিদায় অনুষ্ঠান

Update Time : ০৩:৪২:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

গুরুদাসপুর প্রতিনিধি.

যেতে নাহি দিব হায় ,তবু যেতে দিতে হয়, তবুও চলে যায় কবির এই আকুতিটাই বারবার মনে পরছিল গুরুদাসপুরের চৌকস ও প্রতিভািবান শিক্ষা অফিসার মোঃ হাফিজুর রহমানের বিদায় বেলায়।

আজ ৮ সেপ্টেম্বর বৃস্হপতিবার সকাল ১১টায় মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের হল রুমে ওই বিদায়ী সভার আয়োজন করা হয়। এতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ তমাল হোসন উপস্থিত থেকে তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেন।

এসময় গুরুদাসপুর উপজেলার সকল কলেজ ও মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানগনসহ সাংবাদিক ও নানা শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান জানান,দীর্ঘ ১৫ বছর গুরুদাসপুরে চাকুরী করেছি। কারো মনে কোন কষ্ট পেয়ে থাকলে ক্ষমা সু্ন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। বলেই তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পরেন। পরিশেষে উপস্থিত সকলের কাছে দোয়া কমনা করেন এবং সকলের মঙ্গল ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিদায় নেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তবে ইউএনও তমাল হোসেন বলেন, হাফিজুর রহমান একজন কর্মঠ সৎ এবং যোগ্য লোক ছিলেন। তার আন্তরিক প্রচেষ্টায় শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। আমরা তার সফলতা কামনা করছি।এছাড়া  বিদায় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা বক্তব্য রাখেন। অবশেষে ফুল দিয়ে বিদায় সংর্বধনা মুহুর্তটাকে স্বরনীয় করে রাখা হয়।