সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বাসার ছাদ থেকে দুই বোনের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৩০:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ৪১ Time View

বিশেষ প্রতিবেদক সিলেট.

সিলেট নগরীর মজুমদারি এলাকায় বাসার ছাদ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃতরা হলেন- কলিম উল্লাহর মেয়ে রানী বেগম (৩৪) ও ফাতেমা বেগম (২৭)। এদের মধ্যে রানী নবম শ্রেণি পর্যন্ত এবং ফাতেমা মাস্টার্স পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে আম্বরখানা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম জানান, সকালে বাসার ছাদে থাকা পিলারের সঙ্গে দুই বোনকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দেখতে পান পরিবারের সদস্যরা। পরে খবর দেওয়া হয় পুলিশে।

তিনি আরও জানান, আপন চার বোনের মধ্যে একজনের বিয়ে হয়েছে। তিনি যুক্তরাজ্যে থাকেন। বাকিদের বিয়ে হয়নি এখনও। এই পরিবারের সদস্যদের কিছুটা অ্যাবনরমাল (অপ্রকৃতস্থ, অস্বাভাবিক) মনে হচ্ছে। তারা চাপা স্বভাবের। আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে তাদের তেমন যোগাযোগ নেই।

সিলেট মহানগর পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মোহাম্মদ মাইনুল জাকির বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে দুই বোন আত্মহত্যা করেছে। তবে কী কারণে আত্মহত্যা করেছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যু সংক্রান্ত বিস্তারিত জানা যাবে।

Tag :
Popular Post

সিলেটে বাসার ছাদ থেকে দুই বোনের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

Update Time : ১২:৩০:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

বিশেষ প্রতিবেদক সিলেট.

সিলেট নগরীর মজুমদারি এলাকায় বাসার ছাদ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃতরা হলেন- কলিম উল্লাহর মেয়ে রানী বেগম (৩৪) ও ফাতেমা বেগম (২৭)। এদের মধ্যে রানী নবম শ্রেণি পর্যন্ত এবং ফাতেমা মাস্টার্স পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে আম্বরখানা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম জানান, সকালে বাসার ছাদে থাকা পিলারের সঙ্গে দুই বোনকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দেখতে পান পরিবারের সদস্যরা। পরে খবর দেওয়া হয় পুলিশে।

তিনি আরও জানান, আপন চার বোনের মধ্যে একজনের বিয়ে হয়েছে। তিনি যুক্তরাজ্যে থাকেন। বাকিদের বিয়ে হয়নি এখনও। এই পরিবারের সদস্যদের কিছুটা অ্যাবনরমাল (অপ্রকৃতস্থ, অস্বাভাবিক) মনে হচ্ছে। তারা চাপা স্বভাবের। আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে তাদের তেমন যোগাযোগ নেই।

সিলেট মহানগর পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মোহাম্মদ মাইনুল জাকির বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে দুই বোন আত্মহত্যা করেছে। তবে কী কারণে আত্মহত্যা করেছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যু সংক্রান্ত বিস্তারিত জানা যাবে।