বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মেঘনায় ট্রলার ডুবির একদিন পর নিখোঁজ ১৮ জেলে উদ্ধার

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৭:২৭:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ৪৯ Time View

বনলতা ডেস্ক.

মেঘনায় মাছ শিকারে গিয়ে ট্রলার ডুবে ১৮ জন জেলে নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর উদ্ধার হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চরফ্যাশন উপজেলার ঢালচর সংলগ্ন মেঘনা নদীর মোহনায় এফবি মা জননী-২ নামের একটি ট্রলারের তলা ফেটে ডুবে যায় বলে জানান স্থানীয় জেলেরা। ট্রলারটি উপজেলার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের মাইনুদ্দিন মৎস্যঘাটের মহিউদ্দিন মিয়ার।

মাঝি মহিউদ্দিনের ভাই খলিল বলেন, আমার ভাই মহিউদ্দিন মাঝিসহ নিখোঁজ ১৮ জেলের সন্ধান পাওয়া গেছে। তারা সুস্থ আছে। তাদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তবে ট্রলারটির সন্ধান এখনো পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম হাওলাদার বলেন, ট্রলারটি পাওয়া যায়নি। তবে নিখোঁজ ১৮ জন জেলেকে ঢালচরের একটি ট্রলার উদ্ধার করেছে বলে জেনেছি।

উদ্ধারকৃত জেলেরা হলেন, মহিউদ্দিন মাঝি (৩২), দুলাল (৩৩), সাজাহান মুন্সি (৩৫), আবদুল মুনাফ (৩৭), মোসলেহ উদ্দিন (৩০), ওবায়দুল্লাহ (৩৫), নুরনবী (৪), হাবিবুল্লাহ মিঝি (৫৫), আজাদ (২০), রুবেল (২০), আলমগীর (৩৫), জাকির (২৫), সাজাহান (৬০), ফরিদ (৬০), বেলায়েত (৬০), জাহানপুরের বাসিন্দা জসিম (২৫) ও দৌলাতখান উপজেলার মঞ্জু (৪০)।

শশিভূষণ থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম বলেন, নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারে স্থানীয় জেলে ও থানা পুলিশ নদীতে গেছে।

এর আগে, শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় ৮নং ওয়ার্ডের ১৫ জন ও পাশ্ববর্তী জাহানপুর ইউনিয়নের ১ জন এবং দৌলতখান উপজেলার ২ জন জেলে নিয়ে মেঘনা নদীতে মৎস্য শিকারে যায়।

৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মালেক মিয়া জানান, মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় মাঝি মহিউদ্দিন তার ভাইকে ফোন করে জানায় তাদের ট্রলারটির তলা ফেটে গেছে। ভাসানচরের পূর্ব দিকে মেঘনায় আরেকটি ট্রলার নিয়ে উদ্ধারের জন্য যেতে বলে।

বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসের ফলে ঘাট থেকে কেউ তাদের উদ্ধারে যেতে পাড়েনি। এমন ঘটনায় নিখোঁজ জেলে পল্লীতে চলছে শোকের মাতম।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে স্থানীয় জেলে ও তাদের স্বজনরা উত্তাল মেঘনায় দুইটি ট্রলার নিয়ে নিখোঁজদের সন্ধানে গিয়েছে বলে একাধিক জেলে পরিবার জানায়।

Tag :
Popular Post

মেঘনায় ট্রলার ডুবির একদিন পর নিখোঁজ ১৮ জেলে উদ্ধার

Update Time : ০৭:২৭:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

বনলতা ডেস্ক.

মেঘনায় মাছ শিকারে গিয়ে ট্রলার ডুবে ১৮ জন জেলে নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর উদ্ধার হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চরফ্যাশন উপজেলার ঢালচর সংলগ্ন মেঘনা নদীর মোহনায় এফবি মা জননী-২ নামের একটি ট্রলারের তলা ফেটে ডুবে যায় বলে জানান স্থানীয় জেলেরা। ট্রলারটি উপজেলার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের মাইনুদ্দিন মৎস্যঘাটের মহিউদ্দিন মিয়ার।

মাঝি মহিউদ্দিনের ভাই খলিল বলেন, আমার ভাই মহিউদ্দিন মাঝিসহ নিখোঁজ ১৮ জেলের সন্ধান পাওয়া গেছে। তারা সুস্থ আছে। তাদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তবে ট্রলারটির সন্ধান এখনো পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম হাওলাদার বলেন, ট্রলারটি পাওয়া যায়নি। তবে নিখোঁজ ১৮ জন জেলেকে ঢালচরের একটি ট্রলার উদ্ধার করেছে বলে জেনেছি।

উদ্ধারকৃত জেলেরা হলেন, মহিউদ্দিন মাঝি (৩২), দুলাল (৩৩), সাজাহান মুন্সি (৩৫), আবদুল মুনাফ (৩৭), মোসলেহ উদ্দিন (৩০), ওবায়দুল্লাহ (৩৫), নুরনবী (৪), হাবিবুল্লাহ মিঝি (৫৫), আজাদ (২০), রুবেল (২০), আলমগীর (৩৫), জাকির (২৫), সাজাহান (৬০), ফরিদ (৬০), বেলায়েত (৬০), জাহানপুরের বাসিন্দা জসিম (২৫) ও দৌলাতখান উপজেলার মঞ্জু (৪০)।

শশিভূষণ থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম বলেন, নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারে স্থানীয় জেলে ও থানা পুলিশ নদীতে গেছে।

এর আগে, শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় ৮নং ওয়ার্ডের ১৫ জন ও পাশ্ববর্তী জাহানপুর ইউনিয়নের ১ জন এবং দৌলতখান উপজেলার ২ জন জেলে নিয়ে মেঘনা নদীতে মৎস্য শিকারে যায়।

৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মালেক মিয়া জানান, মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় মাঝি মহিউদ্দিন তার ভাইকে ফোন করে জানায় তাদের ট্রলারটির তলা ফেটে গেছে। ভাসানচরের পূর্ব দিকে মেঘনায় আরেকটি ট্রলার নিয়ে উদ্ধারের জন্য যেতে বলে।

বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসের ফলে ঘাট থেকে কেউ তাদের উদ্ধারে যেতে পাড়েনি। এমন ঘটনায় নিখোঁজ জেলে পল্লীতে চলছে শোকের মাতম।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে স্থানীয় জেলে ও তাদের স্বজনরা উত্তাল মেঘনায় দুইটি ট্রলার নিয়ে নিখোঁজদের সন্ধানে গিয়েছে বলে একাধিক জেলে পরিবার জানায়।