বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অভিনব কায়দায় ৩ লাখ টাকা খোঁয়া গেল স্কুল শিক্ষকের

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:২০:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ অক্টোবর ২০২১
  • ২৮ Time View

পঞ্চগড় প্রতিনিধি
পঞ্চগড়ে পড়ে যাওয়া টাকা কুড়ানোর ফাঁেদ ফেলে অভিনব কায়দায় ইয়াহিয়া খান (৪৬) নামে এক স্কুল শিক্ষকের তিন লাখ টাকা খোঁয়া গেছে। সোমবার (৪ অক্টোবর) বেলা ১০ টা ৫৪ মিনিটের দিকে পঞ্চগড় শহরের মসজিদ পাড়া এলাকার সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের পঞ্চগড় শাখার মুল ফটকের সামনে এই ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে পঞ্চগড় থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পরে তারা ব্যাংকটির ওই শাখা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে। এদিকে টাকা উদ্ধার সহ অপরাধীদের ধরতে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বেনজির আহমেদ। ইয়াহিয়া খান নামে ওই শিক্ষকের বাড়ি পঞ্চগড় পৌরসভার ধাক্কামারা পুরাতন পঞ্চগড় এলাকায়। তিনি সদর উপজেলার আমলাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক পদে চাকুরী করছেন।
ইয়াহিয়া খান নামে ওই স্কুল শিক্ষক বলেন, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ধাক্কামারা শাখায় তিন লাখ টাকা ঋন ছিল আমার। ওই ঋণের টাকা পরিশোধ সহ ব্যাক্তিগত কাজের জন্য তিনি সোনালী ব্যাংক থেকে আট লাখ টাকা ঋন নেই। এরই মধ্যে কয়েকদফায় বেশ কিছু টাকা উত্তোলন করি। পরে সোমবার সকাল ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে সোনালী ব্যাংক পঞ্চগড় শাখা থেকে ঋনের বাকী তিন লাখ টাকা উত্তোলন করতে ব্যাংকের সামনে মোটরসাইকেল রেখে ভেতরে প্রবেশ করি। কিছুক্ষণ পরে তিনি ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে বের হলে তার প্যান্টের পকেট থেকে টাকা পরে গেছে বলে এক অপরিচিত ব্যাক্তি আমাকে জানান। এসময় আমার টাকা পরেনি বলে আমি ওই ব্যাক্তিকে জানাই। পরে অপর এক বয়স্ক ব্যাক্তি আমাকে জানান তার কিছু টাকা পরে গেছে। টাকা গুলো তুলতে আমাকে একটু সাহায্যে করুন। পরে আমি আমার মোটর সাইকেলের হ্যান্ডেলে টাকার ব্যাগটি রেখে ওই বয়স্কস লোকটির টাকা কুড়িয়ে তুলে দিতে যাই। পরে ফিরে এসে দেখি মোটরসাইকেলে হ্যান্ডেলে রাখা টাকার ব্যাগটি নেই। কে বা কারা নিয়ে গেছে। পরে আমি সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে ম্যানেজারের কক্ষে যাই। কিন্তু তাদের কাউকেই চিনতে পারিনি আমি। এর আগেও ব্যাংক এলাকা থেকে এ ধরনের আরো বেশ কিছু ঘটনা ঘটেছে। দূর্বল নিরাপত্তা ব্যবস্থায় অপরাধীরা বারবার অপরাধ করার সুযোগ পাচ্ছে। আমি এ ঘটনার স্ষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে টাকা উদ্ধার সহ দোষীদের কঠোর মাস্তি দাবী করছি। যাতে আর কোনদিন এ ধরনের কোন ঘটনা না ঘটে।
পঞ্চগড় সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার রেজাউল করিম জানান, সোমবার সকালে ইয়াহিয়া নামে এক ব্যাক্তি ব্যাংকে টাকা তুলতে আসেন। পরে টাকা তুলে ফেরার পথে ব্যাংকের বাইরে থেকে তার তিন লাখ টাকা কে বা কারা তাকে ধোঁকা দিয়ে নিয়ে গেছে বলে আমাকে জানায়। আমরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছি। পুলিশ এসে ফুটেজ নিয়ে গেছে। তারা উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।

পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বেনজীর আহমেদ জানান, আমরা ব্যাংকের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। ইতিমধ্যে ফুটেজ ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর সহ বেশ কিছু থানায় পাঠিয়েছি। অপরাধীদের সনাক্ত করে ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Tag :
Popular Post

অভিনব কায়দায় ৩ লাখ টাকা খোঁয়া গেল স্কুল শিক্ষকের

Update Time : ০৯:২০:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ অক্টোবর ২০২১

পঞ্চগড় প্রতিনিধি
পঞ্চগড়ে পড়ে যাওয়া টাকা কুড়ানোর ফাঁেদ ফেলে অভিনব কায়দায় ইয়াহিয়া খান (৪৬) নামে এক স্কুল শিক্ষকের তিন লাখ টাকা খোঁয়া গেছে। সোমবার (৪ অক্টোবর) বেলা ১০ টা ৫৪ মিনিটের দিকে পঞ্চগড় শহরের মসজিদ পাড়া এলাকার সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের পঞ্চগড় শাখার মুল ফটকের সামনে এই ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে পঞ্চগড় থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পরে তারা ব্যাংকটির ওই শাখা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে। এদিকে টাকা উদ্ধার সহ অপরাধীদের ধরতে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বেনজির আহমেদ। ইয়াহিয়া খান নামে ওই শিক্ষকের বাড়ি পঞ্চগড় পৌরসভার ধাক্কামারা পুরাতন পঞ্চগড় এলাকায়। তিনি সদর উপজেলার আমলাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক পদে চাকুরী করছেন।
ইয়াহিয়া খান নামে ওই স্কুল শিক্ষক বলেন, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ধাক্কামারা শাখায় তিন লাখ টাকা ঋন ছিল আমার। ওই ঋণের টাকা পরিশোধ সহ ব্যাক্তিগত কাজের জন্য তিনি সোনালী ব্যাংক থেকে আট লাখ টাকা ঋন নেই। এরই মধ্যে কয়েকদফায় বেশ কিছু টাকা উত্তোলন করি। পরে সোমবার সকাল ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে সোনালী ব্যাংক পঞ্চগড় শাখা থেকে ঋনের বাকী তিন লাখ টাকা উত্তোলন করতে ব্যাংকের সামনে মোটরসাইকেল রেখে ভেতরে প্রবেশ করি। কিছুক্ষণ পরে তিনি ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে বের হলে তার প্যান্টের পকেট থেকে টাকা পরে গেছে বলে এক অপরিচিত ব্যাক্তি আমাকে জানান। এসময় আমার টাকা পরেনি বলে আমি ওই ব্যাক্তিকে জানাই। পরে অপর এক বয়স্ক ব্যাক্তি আমাকে জানান তার কিছু টাকা পরে গেছে। টাকা গুলো তুলতে আমাকে একটু সাহায্যে করুন। পরে আমি আমার মোটর সাইকেলের হ্যান্ডেলে টাকার ব্যাগটি রেখে ওই বয়স্কস লোকটির টাকা কুড়িয়ে তুলে দিতে যাই। পরে ফিরে এসে দেখি মোটরসাইকেলে হ্যান্ডেলে রাখা টাকার ব্যাগটি নেই। কে বা কারা নিয়ে গেছে। পরে আমি সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে ম্যানেজারের কক্ষে যাই। কিন্তু তাদের কাউকেই চিনতে পারিনি আমি। এর আগেও ব্যাংক এলাকা থেকে এ ধরনের আরো বেশ কিছু ঘটনা ঘটেছে। দূর্বল নিরাপত্তা ব্যবস্থায় অপরাধীরা বারবার অপরাধ করার সুযোগ পাচ্ছে। আমি এ ঘটনার স্ষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে টাকা উদ্ধার সহ দোষীদের কঠোর মাস্তি দাবী করছি। যাতে আর কোনদিন এ ধরনের কোন ঘটনা না ঘটে।
পঞ্চগড় সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার রেজাউল করিম জানান, সোমবার সকালে ইয়াহিয়া নামে এক ব্যাক্তি ব্যাংকে টাকা তুলতে আসেন। পরে টাকা তুলে ফেরার পথে ব্যাংকের বাইরে থেকে তার তিন লাখ টাকা কে বা কারা তাকে ধোঁকা দিয়ে নিয়ে গেছে বলে আমাকে জানায়। আমরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছি। পুলিশ এসে ফুটেজ নিয়ে গেছে। তারা উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।

পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বেনজীর আহমেদ জানান, আমরা ব্যাংকের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। ইতিমধ্যে ফুটেজ ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর সহ বেশ কিছু থানায় পাঠিয়েছি। অপরাধীদের সনাক্ত করে ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।