শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নলডাঙ্গায় পরকীয়া প্রেমের জেরে পল্লী চিকিৎসক খুন 

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৫৮:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ অক্টোবর ২০২১
  • ৪৪ Time View

নলডাঙ্গা(নাটোর)প্রতিনিধিঃ

নাটোরের নলডাঙ্গায় পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রতিপক্ষের ফালার আঘাতে আহত রহিদুল ইসলাম (৪৫) নামের এক পল্লী চিকিৎসক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। নলডাঙ্গা উপজেলার ব্রহ্মপুর ইউনিয়নের ক্ষুদ্রবাড়িয়াহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রবিবার (৩ অক্টোবর) রাত ১০ টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি। স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের জেরে গত ২৭ সেপ্টম্বর সোমবার রাত ৯ টার দিকে পল্লী চিকিৎসক রহিদুল ইসলাম পীরগাছা বাজারে নিজের ঔষুধের দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে প্রতিপক্ষ মহসিন আলী ভুট্রু ফালা দিয়ে আঘাত করলে গুরুতর জখম হয় রহিদুল। পরে গুরুতর আহত অবস্থায়  রহিদুল ইসলামকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা। নিহত রহিদুল ইসলাম (৪৫) উপজেলার ক্ষুদ্রবাড়িয়াহাটি গ্রামের আবুল কাসেম মন্ডলের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভুট্টুর স্ত্রী জোসনা বেগমের সাথে নিহত রহিদুলের দীর্ঘদিনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার স্থানীয়ভাবে বসে সমাধানের চেষ্টা করা হয়। সমাধান ফলপ্রসু না হলে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়। সর্বশেষ জোসনা বেগম ভুট্টুকে তালাক দিলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে গত সোমবার এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান,গত ২৭ সেপ্টম্বর সোমবার রাত ৯ টার দিকে গ্রাম্য ডাক্তার রহিদুল ইসলাম বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রতিপক্ষ কোমরপুর গ্রামের মকসেদ আলীর ছেলে মহসিন আলী ভুট্রু (৩৫) ফালা দিয়ে আঘাত করে। ফালার আঘাতে গুরুতর আহত অবস্থায় রহিদুল ইসলামকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে তার স্বজনরা। ঘটনার ৭ দিন পর রবিবার রাত ১০ টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। সোমবার দুপুরে পল্লী চিকিৎসক রহিদুলের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে আনা হয়। এ ঘটনায় নলডাঙ্গা থানায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

Tag :
Popular Post

নলডাঙ্গায় পরকীয়া প্রেমের জেরে পল্লী চিকিৎসক খুন 

Update Time : ০৮:৫৮:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ অক্টোবর ২০২১

নলডাঙ্গা(নাটোর)প্রতিনিধিঃ

নাটোরের নলডাঙ্গায় পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রতিপক্ষের ফালার আঘাতে আহত রহিদুল ইসলাম (৪৫) নামের এক পল্লী চিকিৎসক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। নলডাঙ্গা উপজেলার ব্রহ্মপুর ইউনিয়নের ক্ষুদ্রবাড়িয়াহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রবিবার (৩ অক্টোবর) রাত ১০ টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি। স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের জেরে গত ২৭ সেপ্টম্বর সোমবার রাত ৯ টার দিকে পল্লী চিকিৎসক রহিদুল ইসলাম পীরগাছা বাজারে নিজের ঔষুধের দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে প্রতিপক্ষ মহসিন আলী ভুট্রু ফালা দিয়ে আঘাত করলে গুরুতর জখম হয় রহিদুল। পরে গুরুতর আহত অবস্থায়  রহিদুল ইসলামকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা। নিহত রহিদুল ইসলাম (৪৫) উপজেলার ক্ষুদ্রবাড়িয়াহাটি গ্রামের আবুল কাসেম মন্ডলের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভুট্টুর স্ত্রী জোসনা বেগমের সাথে নিহত রহিদুলের দীর্ঘদিনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার স্থানীয়ভাবে বসে সমাধানের চেষ্টা করা হয়। সমাধান ফলপ্রসু না হলে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়। সর্বশেষ জোসনা বেগম ভুট্টুকে তালাক দিলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে গত সোমবার এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান,গত ২৭ সেপ্টম্বর সোমবার রাত ৯ টার দিকে গ্রাম্য ডাক্তার রহিদুল ইসলাম বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রতিপক্ষ কোমরপুর গ্রামের মকসেদ আলীর ছেলে মহসিন আলী ভুট্রু (৩৫) ফালা দিয়ে আঘাত করে। ফালার আঘাতে গুরুতর আহত অবস্থায় রহিদুল ইসলামকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে তার স্বজনরা। ঘটনার ৭ দিন পর রবিবার রাত ১০ টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। সোমবার দুপুরে পল্লী চিকিৎসক রহিদুলের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে আনা হয়। এ ঘটনায় নলডাঙ্গা থানায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।