বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে ২১ মোবাইলসহ তিন হ্যাকার গ্রেপ্তার

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৭:২৩:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ অক্টোবর ২০২১
  • ১৫৩ Time View

বিশেষ প্রতিবেদক, রাজশাহী:
রাজশাহীতে ২১টি মোবাইল ফোন ও ৪৯টি সিমকার্ডসহ তিন হ্যাকারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। রবিবার (১০ অক্টোবর) ভোর সাড়ে ৩টার দিকে নগরীর চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা সবাই সংঘবদ্ধ হ্যাকার চক্রের সক্রিয় সদস্য।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- নাটোরের লালপুর উপজেলার বিলমারিয়া এলাকার মৃত সামাদ বিশ্বাসের ছেলে শাকিব বিশ্বাস (১৯), একই উপজেলার মমিনপুর এলাকার জাফর আলীর ছেলে মেহেদী আলী (২১) এবং রাজশাহীর হরিরামপুর এলাকার আলম হোসেনের ছেলে আল-আমিন(২০)।

গতকাল রবিবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এ তিন হ্যাকারকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে আরো তিনজন পালিয়ে যায়। তারা ইমো হ্যাক করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিত।
তাদের কাছ থেকে ২১টি মোবাইল ফোন ও ৪৯টি সিমকার্ড ছাড়াও ৪টি মেমোরি কার্ড, দুটি ল্যাপটপ, একটি ক্যামেরা, দুটি ব্লুটুথ মাউস, তিনটি চার্জার, একটি টেলিফোন ও একটি সিসি ক্যামেরা উদ্ধার করা হয়। এসময় সাড়ে ৪৫ হাজার টাকাও পাওয়া যায় তাদের কাছে। এ ঘটনায় চন্দ্রিমা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব।

Tag :

রাজশাহীতে ২১ মোবাইলসহ তিন হ্যাকার গ্রেপ্তার

Update Time : ০৭:২৩:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ অক্টোবর ২০২১

বিশেষ প্রতিবেদক, রাজশাহী:
রাজশাহীতে ২১টি মোবাইল ফোন ও ৪৯টি সিমকার্ডসহ তিন হ্যাকারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। রবিবার (১০ অক্টোবর) ভোর সাড়ে ৩টার দিকে নগরীর চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা সবাই সংঘবদ্ধ হ্যাকার চক্রের সক্রিয় সদস্য।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- নাটোরের লালপুর উপজেলার বিলমারিয়া এলাকার মৃত সামাদ বিশ্বাসের ছেলে শাকিব বিশ্বাস (১৯), একই উপজেলার মমিনপুর এলাকার জাফর আলীর ছেলে মেহেদী আলী (২১) এবং রাজশাহীর হরিরামপুর এলাকার আলম হোসেনের ছেলে আল-আমিন(২০)।

গতকাল রবিবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এ তিন হ্যাকারকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে আরো তিনজন পালিয়ে যায়। তারা ইমো হ্যাক করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিত।
তাদের কাছ থেকে ২১টি মোবাইল ফোন ও ৪৯টি সিমকার্ড ছাড়াও ৪টি মেমোরি কার্ড, দুটি ল্যাপটপ, একটি ক্যামেরা, দুটি ব্লুটুথ মাউস, তিনটি চার্জার, একটি টেলিফোন ও একটি সিসি ক্যামেরা উদ্ধার করা হয়। এসময় সাড়ে ৪৫ হাজার টাকাও পাওয়া যায় তাদের কাছে। এ ঘটনায় চন্দ্রিমা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব।