শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

 যমুনায় গেলেন মাছ ধরতে ফিরে এলেন লাশ হয়ে 

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৫৩:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১
  • ৬৬ Time View

মোঃহারুনার রশীদ(হারুন)বেড়া, পাবনাঃ

যমুনা নদীতে ডুব দিয়ে মাছ ধরার সময় নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সোহেল হোসেন (১৮) নামের এক তরুণের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (১১ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে পাবনার বেড়া উপজেলার কৈতলা ইউনিয়নের মাছখালি গ্রাম সংলগ্ন যমুনা নদীতে তিনি নিখোঁজ হয়েছিলেন। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুর ৩টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে নতুন ভারেঙ্গা ইউনিয়নের নেওলাইপাড়া ঘাট নামক স্থানে যমুনা নদীতে তাঁর লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা।
এলাকাবাসী জানান, উপজেলার মাছখালি গ্রামের রুহুল মোল্লার ছেলে সোহেল হোসেন সোমবার (১১ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে বাড়ির পাশে যমুনা নদীতে বন্ধুদের সঙ্গে ডুব দিয়ে মাছ ধরতে যান। এক পর্যায়ে তিনি ডুব দিয়ে আর উঠে আসেননি। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে খুঁজতে তল্লাশি চালান। সোমবার বিকালে রাজশাহী থেকে একদল ডুবুরি গিয়েও তাঁর খোঁজে তল্লাশি চালায়। কিন্তু ওই সময় তাঁর খোঁজ মেলেনি। অবশেষে মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে নেওলাইপাড়া ঘাট নামক স্থানে তাঁর লাশ ভাসতে দেখা যায়।
বেড়া ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান বাবর আলী জানান, খবর পেয়ে তাঁরা (ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা) সোমবার (১১ অক্টোবর) দিনভর ও গতকাল (১২ অক্টোবর) দুপুর পর্যন্ত যমুনা নদীতে তল্লাশি চালিয়েছেন। তাঁদের সঙ্গে রাজশাহীর ডুবুরিরাও অংশ নিয়েছিলেন।

Tag :
Popular Post

 যমুনায় গেলেন মাছ ধরতে ফিরে এলেন লাশ হয়ে 

Update Time : ০৮:৫৩:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১

মোঃহারুনার রশীদ(হারুন)বেড়া, পাবনাঃ

যমুনা নদীতে ডুব দিয়ে মাছ ধরার সময় নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সোহেল হোসেন (১৮) নামের এক তরুণের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (১১ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে পাবনার বেড়া উপজেলার কৈতলা ইউনিয়নের মাছখালি গ্রাম সংলগ্ন যমুনা নদীতে তিনি নিখোঁজ হয়েছিলেন। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুর ৩টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে নতুন ভারেঙ্গা ইউনিয়নের নেওলাইপাড়া ঘাট নামক স্থানে যমুনা নদীতে তাঁর লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা।
এলাকাবাসী জানান, উপজেলার মাছখালি গ্রামের রুহুল মোল্লার ছেলে সোহেল হোসেন সোমবার (১১ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে বাড়ির পাশে যমুনা নদীতে বন্ধুদের সঙ্গে ডুব দিয়ে মাছ ধরতে যান। এক পর্যায়ে তিনি ডুব দিয়ে আর উঠে আসেননি। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে খুঁজতে তল্লাশি চালান। সোমবার বিকালে রাজশাহী থেকে একদল ডুবুরি গিয়েও তাঁর খোঁজে তল্লাশি চালায়। কিন্তু ওই সময় তাঁর খোঁজ মেলেনি। অবশেষে মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে নেওলাইপাড়া ঘাট নামক স্থানে তাঁর লাশ ভাসতে দেখা যায়।
বেড়া ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান বাবর আলী জানান, খবর পেয়ে তাঁরা (ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা) সোমবার (১১ অক্টোবর) দিনভর ও গতকাল (১২ অক্টোবর) দুপুর পর্যন্ত যমুনা নদীতে তল্লাশি চালিয়েছেন। তাঁদের সঙ্গে রাজশাহীর ডুবুরিরাও অংশ নিয়েছিলেন।