গুরুদাসপুরে কীটনাশকের দোকানে অভিযান, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

মোঃ মাজেম আলীমোঃ মাজেম আলী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:৪৯ PM, ০৩ অগাস্ট ২০২২

গুরুদাসপুর(নাটোর) প্রতিনিধি. গুরুদাসপুর উপজেলার চাঁচকৈড় বাজারে আজ বুধবার (৩ আগস্ট) বালাইনাশক দোকানে অভিযান চালিয়ে বালাইনাশক বিক্রেতার ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সেই সাথে প্রায় ৫০০ প্যাকেট পণ্য জব্দ করা হয়েছে যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৮৫ হাজার টাকা।

খোঁজ নিয়ে জানায়ায় , নিয়মিত মনিটরিংয়ের অংশ হিসেবে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। উপজেলার চাঁচকৈড় বাজারের খুচরা ও পাইকারী বালাইনাশক প্রতিষ্ঠান মেসার্স সরদার এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী সাইম সরদারকে এই জরিমানা করা হয়েছে। একটি পণ্যের রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার বিকৃত করে পণ্য বিক্রয় করার অপরাধে তাকে অভিযুক্ত করা হয়। ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯ এর আওতায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আবু রাসেল। অভিযান পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন বালাইনাশক পরিদর্শক মতিয়র রহমান। অভিযানে সরদার এন্টারপ্রাইজ থেকে প্রায় ৫০০ প্যাকেট পণ্য জব্দ করা হয়েছে যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৮৫ হাজার টাকা।

 

বালাইনাশক পরিদর্শক মতিয়র রহমান বলেন, নকল, ভেজাল কিংবা নিম্নমানের পণ্য বিরোধী অভিযান চলমান রয়েছে। নিয়মিত মনিটরিংয়ের অংশ হিসেবে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। মিথ্যা বা অসত্য তথ্য দিয়ে কৃষকের সাথে প্রতারণা করার কোনো সুযোগ নেই। বালাইনাশক পণ্য উৎপাদন, সংরক্ষণ, বাজারজাতকরণ সবকিছুই পেস্টিসাইড রুলস ও বালাইনাশক আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। সুতরাং আইনের বাইরে কাজ করার সুযোগ নেই৷ আজকের অভিযানে কৃষকের স্বার্থকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার হারুনর রশিদ বলেন, নকল, ভেজাল, মেয়াদোত্তীর্ণ কিংবা মানহীন পণ্য ব্যবহার করে কৃষক অনেক সময় প্রতারিত হোন এবং তাদের উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি পায় ও ফসল নষ্ট হয়। এতে কৃষক আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হোন। কৃষকের স্বার্থে এ ধরনের অভিযান আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। বিদ্যমান আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেই ব্যবসা পরিচালনা করতে হবে। কৃষকের ক্ষতি হয় এমন কার্যক্রম বন্ধে আমরা বদ্ধপরিকর।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনার সময় গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল মতিন ও অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা সহযোগিতা করেন।

আপনার মতামত লিখুন :