সিংড়ায় প্রবাসীর স্ত্রী ও যুবক আপত্তিকর অবস্থায় ধরা, জুতার মালা ও বেত্রাঘাতে গ্রাম্য শালিশে শাস্তি

বনলতা নিউজ ডেস্ক.বনলতা নিউজ ডেস্ক.
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৩৫ PM, ০৩ নভেম্বর ২০২২

সিংড়া প্রতিনিধি. নাটোরের সিংড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় আমির হামজা নামে আটক এক যুবককে জরিমানা হিসেবে গুনতে হয়েছে ১০ হাজার টাকা। এছাড়া একশ ঘা বেত্রাঘাতসহ জুতার মালা পড়িয়ে এলাকা ঘোরানো হয়। গ্রাম্য শালিসের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়া প্রবাসীর স্ত্রী ও যুবককে ১০০ বেত্রাঘাত ও জুতার মালা পড়িয়ে ঘুড়ানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল হয়।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে উপজেলার ডাহিয়া ইউনিয়নের পূর্ব ভেংড়ী গ্রামের প্রবাসী জামাল উদ্দিনের বাড়িতে তার স্ত্রী ও পশ্চিম ভেংড়ী গ্রামের যুবক আমির হামজাকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে স্থানীয়রা । পরে ওই বাড়ির উঠানে গ্রাম্য শালিসে আটককৃত যুবক ও প্রবাসীর স্ত্রী কে ১০০ বেত্রাঘাত ও জুতার মালা পড়িয়ে ঘোড়ানো সহ যুবকের দশ হাজার টাকা জরিমানা করেন গ্রাম্য প্রধানরা। পড়ে তাদের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়লে এনিয়ে গ্রামে সমালোচনার ঝড় উঠে। এলাকাবাসী জানায়, মাতববর আফসার আলী, আনোয়ার হোসেন, আব্দুল মান্নান, হান্নান আলী, সহ গ্রাম্য প্রধানরা প্রবাসীর স্ত্রী ও যুবক আমির হামজা কে ১০০ বেত্রাঘাত ও জুতার মালা এবং যুবকের দশ হাজার টাকা জরিমানা করেন ।

গ্রাম প্রধান আফসার আলী বলেন, সামাজিক বিধান কান ধরে উঠবস করিয়ে আটক যুবক ও যুবতীকে তাদের অভিভাবকের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। আর হাদিস ও শরিয়তের বিধানে আছে বলে গ্রাম্য মাতব্বররা এই রায় দিয়েছে বলে জানান তিনি। তবে তিনি এই ঘটনার সাথে পুরোপুরি জড়িত নন।

এবিষয়ে ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল মজিদ মামুন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, গ্রাম্য মাতব্বরদের এই ধরনের বিচার বা জুতার মালা পড়িয়ে গ্রাম ঘুড়ানো দুঃখজনক ঘটনা। তিনি দোষীদের বিচার দাবি করেন।

সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম পাঠানো হয়েছে। সম্ভবত শালিস-দরবার নিয়ে কোন ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :