বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গুরুদাসপুরে হেলালের খুনিদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন-বিক্ষোভ সমাবেশ

  • Reporter Name
  • Update Time : ০১:২৯:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ ২০২৩
  • ৭৭ Time View

গুরুদাসপুর(নাটোর) প্রতিনিধি. নাটোরের গুরুদাসপুরে হেলালের খুনিদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করেছে চাঁচকৈড় ট্রাক ট্যাংক লড়ী ও কাভার্ড ভ্যান পরিবহন ইউনিয়ন ও এলাকাবাসি। ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার চাচঁকৈড় ধানহাটা বাজার এলাকায় সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত টানা দুই ঘন্টা চলে ওই মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ।

ওই সমাবেশে নিহত হেলালের স্বজনরা হেলাল ও তার ছোট ভাই আহত শিশিরের রক্তমাখা পোশাক নিয়ে কাঁন্নায় ভেঙ্গে পরেন। মানববন্ধন ও বিক্ষোবে হাজারো জনতার কন্ঠে “হেলাল হত্যার বিচার চাই, আসামীদের ফাঁসি চাই” মুহু মুহু শ্লোগানে গোটা বাজার এলাকা কেঁপে উঠে। আমার ভাই হেলাল মরলো কেন, আমার ভাই শিশির পঙ্গ কেন খুনিরা জবাবদে। এরকম অসংখ্য ব্যানার শ্লোগান আর ফেসটুনে সকাল থেকেই ভরে যায় গোটা বাজার এলাকা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, শ্রমিক নেতারা এই নিঃসস্ব হত্যা কান্ডে জরিতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দ্রæত বিচারের দাবী জানান। সেই সাথে এ ধরনের ন্যাক্কার জনক ঘটনা যেন আর না ঘটে তার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

নিঃসস্ব ওই হত্যাকান্ডের ঘটনায় নাটোর ৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দস অসুস্থ্য থাকায় ঢাকা থেকে মুঠোফোনে দলীয় নেতাকর্মীদের অসহায় পরিবারটির পাশে থাকার আহবান জানিয়ে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের দ্রæত গেফতার করে আইনের আওতায় আনার নির্দেশ দেন প্রশাসনকে। সেই সাথে শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলাল শেখ, পৌর আওয়মী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সবুজ, বিশিষ্টি ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম মুন্সি, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক আসিফ আব্দুল্লাহ বিন কুদ্দুস শোভন, উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি আতিয়ার রহমান বাঁধন, পৌর ছাত্র লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, বিলচলন শহিদ সামসুজ্জোহা সরকারী কলেজ শাখা ছাত্র লীগের সভাপতি সজিবুর রহমান সোহান, নিহত হেলালের মা হেনা বেওয়াসহ তার স্বজন, শ্রমিক নেতা, ব্যবসায়ী ও এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিরা।

উল্লেখ্য এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকাল আনুমানিক সাড়ে দশটার দিকে উপজেলা পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজারের ট্রাঙ্কলরি ক্যাভার্ড ভ্যান শ্রমিক অফিসের সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হেলাল সরদারকে খুন করে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে প্রেরণ করা হয় নিহত হেলাল সরদারের ছোট ভাই শিশির সরদার (২৩) কে। নিহত হেলাল সরদার খামারনাচকৈড় মহল্লার মৃত্যু সাখাওয়াত সরদারের ছেলে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নিহত হেলাল সরদারের মা হেনা বেওয়া গুরুদাসপুরের পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ মোল্লাসহ ১৯ জনকে আসামী করে গুরুদাসপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার দিন রাতেই তোহা, তুহীন এবং আকাশ নামের তিন আসামীকে আটক করেছে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। পরে বুধবার দুপুর ১২টার দিকে আটকৃতদের নাটোর আদালতে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আব্দুল মতিন বলেন, ঘটনাস্থল থেকে চাঁচকৈড় বাজার এলাকার জিল্লুর জামাদারের ছেলে মোঃ তোহা জামাদার (১৯) প্রফেসর পাড়া মহল্লার আঃ মোতালেবের ছেলে মোঃ তুহিন (১৮) এবং কাচারী পাড়া মহল্লার আঃ রশিদের ছেলে আকাশ (২০) নামের তিন জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Tag :

গুরুদাসপুরে হেলালের খুনিদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন-বিক্ষোভ সমাবেশ

Update Time : ০১:২৯:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ ২০২৩

গুরুদাসপুর(নাটোর) প্রতিনিধি. নাটোরের গুরুদাসপুরে হেলালের খুনিদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করেছে চাঁচকৈড় ট্রাক ট্যাংক লড়ী ও কাভার্ড ভ্যান পরিবহন ইউনিয়ন ও এলাকাবাসি। ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার চাচঁকৈড় ধানহাটা বাজার এলাকায় সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত টানা দুই ঘন্টা চলে ওই মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ।

ওই সমাবেশে নিহত হেলালের স্বজনরা হেলাল ও তার ছোট ভাই আহত শিশিরের রক্তমাখা পোশাক নিয়ে কাঁন্নায় ভেঙ্গে পরেন। মানববন্ধন ও বিক্ষোবে হাজারো জনতার কন্ঠে “হেলাল হত্যার বিচার চাই, আসামীদের ফাঁসি চাই” মুহু মুহু শ্লোগানে গোটা বাজার এলাকা কেঁপে উঠে। আমার ভাই হেলাল মরলো কেন, আমার ভাই শিশির পঙ্গ কেন খুনিরা জবাবদে। এরকম অসংখ্য ব্যানার শ্লোগান আর ফেসটুনে সকাল থেকেই ভরে যায় গোটা বাজার এলাকা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, শ্রমিক নেতারা এই নিঃসস্ব হত্যা কান্ডে জরিতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দ্রæত বিচারের দাবী জানান। সেই সাথে এ ধরনের ন্যাক্কার জনক ঘটনা যেন আর না ঘটে তার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

নিঃসস্ব ওই হত্যাকান্ডের ঘটনায় নাটোর ৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দস অসুস্থ্য থাকায় ঢাকা থেকে মুঠোফোনে দলীয় নেতাকর্মীদের অসহায় পরিবারটির পাশে থাকার আহবান জানিয়ে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের দ্রæত গেফতার করে আইনের আওতায় আনার নির্দেশ দেন প্রশাসনকে। সেই সাথে শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলাল শেখ, পৌর আওয়মী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সবুজ, বিশিষ্টি ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম মুন্সি, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক আসিফ আব্দুল্লাহ বিন কুদ্দুস শোভন, উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি আতিয়ার রহমান বাঁধন, পৌর ছাত্র লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, বিলচলন শহিদ সামসুজ্জোহা সরকারী কলেজ শাখা ছাত্র লীগের সভাপতি সজিবুর রহমান সোহান, নিহত হেলালের মা হেনা বেওয়াসহ তার স্বজন, শ্রমিক নেতা, ব্যবসায়ী ও এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিরা।

উল্লেখ্য এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকাল আনুমানিক সাড়ে দশটার দিকে উপজেলা পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজারের ট্রাঙ্কলরি ক্যাভার্ড ভ্যান শ্রমিক অফিসের সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হেলাল সরদারকে খুন করে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে প্রেরণ করা হয় নিহত হেলাল সরদারের ছোট ভাই শিশির সরদার (২৩) কে। নিহত হেলাল সরদার খামারনাচকৈড় মহল্লার মৃত্যু সাখাওয়াত সরদারের ছেলে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নিহত হেলাল সরদারের মা হেনা বেওয়া গুরুদাসপুরের পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ মোল্লাসহ ১৯ জনকে আসামী করে গুরুদাসপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার দিন রাতেই তোহা, তুহীন এবং আকাশ নামের তিন আসামীকে আটক করেছে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। পরে বুধবার দুপুর ১২টার দিকে আটকৃতদের নাটোর আদালতে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আব্দুল মতিন বলেন, ঘটনাস্থল থেকে চাঁচকৈড় বাজার এলাকার জিল্লুর জামাদারের ছেলে মোঃ তোহা জামাদার (১৯) প্রফেসর পাড়া মহল্লার আঃ মোতালেবের ছেলে মোঃ তুহিন (১৮) এবং কাচারী পাড়া মহল্লার আঃ রশিদের ছেলে আকাশ (২০) নামের তিন জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।