বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ক্রেতা সেজে শিয়ালের মাংস বিক্রেতাকে কবজা করলেন বন কর্মকর্তা

ফেসবুকে শিয়ালের মাংস বিক্রি করার ঘোষণা দিয়েছেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বাবুল হোসেন (৩০) নামের এক যুবক। ক্রেতা সেজে জীবিত শিয়ালসহ ওই যুবককে আটক করেন উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ৭ হাজার টাকা জরিমানা করে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

গতকাল মঙ্গলবার (২ মে) রাত ৯ টার দিকে উপজেলার চরক্লার্ক ইউনিয়নের বাংলাবাজারে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলার সহকারী কমিশার (ভূমি) অশোক বিক্রম চাকমা। দণ্ডপ্রাপ্ত বাবুল হোসেন সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের চর আকরাম উদ্দিন এলাকার মো. বাহারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফেসবুক আইডিতে শিয়ালের মাংস বিক্রি হবে বলে স্টাটাস দেন সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা বাবুল হোসেন। এতে তিনি যোগাযোগ করার জন্য একটু মুঠোফোন নম্বর যুক্ত করে দেন। বিষয়টি উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেনের নজরে আসলে তিনি মুঠোফোন নম্বরে কল দিয়ে ক্রেতা সেজে বাবুল হোসেনকে শিয়ালসহ আটক করেন। তারপর উপজেলার সহকারী কমিশার (ভূমি) অশোক বিক্রম চাকমা ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বাবুলকে সাত হাজার টাকা জরিমানা করেন।

উপজেলার সহকারী কমিশার (ভূমি) অশোক বিক্রম চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বন বিভাগের সহায়তায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইন অনুসারে শিয়াল এর মাংস ক্রয়-বিক্রয় নিষিদ্ধ। তাই বাবুলকে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইন ২০১২ অনুসারে ৭০০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। জব্দ করা শিয়াল বনবিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। যা আগামীকাল অবমুক্ত করা হবে।

এ সময় উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেনসহ চরজব্বর থানার পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন

Tag :
About Author Information

Daily Banalata

Popular Post

ক্রেতা সেজে শিয়ালের মাংস বিক্রেতাকে কবজা করলেন বন কর্মকর্তা

Update Time : ০৫:২৪:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩

ফেসবুকে শিয়ালের মাংস বিক্রি করার ঘোষণা দিয়েছেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বাবুল হোসেন (৩০) নামের এক যুবক। ক্রেতা সেজে জীবিত শিয়ালসহ ওই যুবককে আটক করেন উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ৭ হাজার টাকা জরিমানা করে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

গতকাল মঙ্গলবার (২ মে) রাত ৯ টার দিকে উপজেলার চরক্লার্ক ইউনিয়নের বাংলাবাজারে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলার সহকারী কমিশার (ভূমি) অশোক বিক্রম চাকমা। দণ্ডপ্রাপ্ত বাবুল হোসেন সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের চর আকরাম উদ্দিন এলাকার মো. বাহারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফেসবুক আইডিতে শিয়ালের মাংস বিক্রি হবে বলে স্টাটাস দেন সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা বাবুল হোসেন। এতে তিনি যোগাযোগ করার জন্য একটু মুঠোফোন নম্বর যুক্ত করে দেন। বিষয়টি উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেনের নজরে আসলে তিনি মুঠোফোন নম্বরে কল দিয়ে ক্রেতা সেজে বাবুল হোসেনকে শিয়ালসহ আটক করেন। তারপর উপজেলার সহকারী কমিশার (ভূমি) অশোক বিক্রম চাকমা ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বাবুলকে সাত হাজার টাকা জরিমানা করেন।

উপজেলার সহকারী কমিশার (ভূমি) অশোক বিক্রম চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বন বিভাগের সহায়তায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইন অনুসারে শিয়াল এর মাংস ক্রয়-বিক্রয় নিষিদ্ধ। তাই বাবুলকে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইন ২০১২ অনুসারে ৭০০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। জব্দ করা শিয়াল বনবিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। যা আগামীকাল অবমুক্ত করা হবে।

এ সময় উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. মোশাররফ হোসেনসহ চরজব্বর থানার পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন