বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

  খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে ইমামের সর্বস্ব লুট

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে হাফেজ মাওলানা দেলোয়ার হোসেনের পরিবারের সদস্যদের অজ্ঞান করে সর্বস্ব লুটে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। এর মধ্যে মোটরসাইকেল, গয়না, নগদ টাকা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) রাতে উপজেলার চরআমান উল্যাহ ইউনিয়নের সাতাশ দ্রোণ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হাফেজ মাওলানা মো. দেলোয়ার হোসেন উপজেলার সাতাশ দ্রোণ জামে মসজিদের পেশ ইমাম। বৃহস্পতিবার  রাত ১১টার দিকে হাফেজ মো. দেলোয়ার হোসেনের পরিবারের লোকজন রাতে খাওয়ার পর সবাই এক সঙ্গে ঘুমাতে যায়। কোনো দুর্বৃত্ত চক্র কৌশলে আগেই তাদের খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে রেখেছিল। ফলে তারা সবাই অচেতন হয়ে পড়ে। ওই সময় দুর্বৃত্তরা হাফেজ দেলোয়ারের শোবার ঘরের দরজা খুলে একটি মোটরসাইকেল, দুটি মোবাইল, স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ অন্তত ৪ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নেয়। শুক্রবার সকালে অচেতন অবস্থায় হাফেজ মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সহ তার পরিবারের সদস্য মাছুমা খাতুন (৩৫) ও আবু দাউদ (৩) কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে  উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেব প্রিয় দাশ বলেন,  খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে।  লিখিত অভিযোগের আলোকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Tag :
About Author Information

Daily Banalata

  খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে ইমামের সর্বস্ব লুট

Update Time : ০৭:৪৪:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ মে ২০২৩

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে হাফেজ মাওলানা দেলোয়ার হোসেনের পরিবারের সদস্যদের অজ্ঞান করে সর্বস্ব লুটে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। এর মধ্যে মোটরসাইকেল, গয়না, নগদ টাকা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) রাতে উপজেলার চরআমান উল্যাহ ইউনিয়নের সাতাশ দ্রোণ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হাফেজ মাওলানা মো. দেলোয়ার হোসেন উপজেলার সাতাশ দ্রোণ জামে মসজিদের পেশ ইমাম। বৃহস্পতিবার  রাত ১১টার দিকে হাফেজ মো. দেলোয়ার হোসেনের পরিবারের লোকজন রাতে খাওয়ার পর সবাই এক সঙ্গে ঘুমাতে যায়। কোনো দুর্বৃত্ত চক্র কৌশলে আগেই তাদের খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে রেখেছিল। ফলে তারা সবাই অচেতন হয়ে পড়ে। ওই সময় দুর্বৃত্তরা হাফেজ দেলোয়ারের শোবার ঘরের দরজা খুলে একটি মোটরসাইকেল, দুটি মোবাইল, স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ অন্তত ৪ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নেয়। শুক্রবার সকালে অচেতন অবস্থায় হাফেজ মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সহ তার পরিবারের সদস্য মাছুমা খাতুন (৩৫) ও আবু দাউদ (৩) কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে  উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেব প্রিয় দাশ বলেন,  খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে।  লিখিত অভিযোগের আলোকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।