বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চলে গেলেন না ফেরার দেশে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান

  • Reporter Name
  • Update Time : ০২:৫৯:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মে ২০২০
  • ৮৯ Time View

বনলতা নিউজ ডেস্ক.  

চলে গেলেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নালিল্লাহি রাজিউন)। বৃহস্পতিবার বিকালে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) তিনি মারা যান।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের ছেলে আনন্দ জামান বলেন, ‘আমার বাবা সিএমএইচে ভর্তি ছিলেন। বিকাল ৪টা ৫৫ মিনিটে বাবা মারা গেছেন।’

এর আগে বার্ধক্যজনিত সমস্যার কারণে গত ২৭ এপ্রিল রাজধানীর ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতালে ভর্তি হন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। সেখানে চিফ কার্ডিওলজিস্ট অধ্যাপক খন্দকার কামরুল ইসলামের অধীনে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি।

পরে প্রত্যাশিত উন্নতির লক্ষণ দেখতে না পাওয়ায় চিকিৎসকেরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখেন। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় গত ৯ মে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) স্থানান্তর করা হয়।

সেখানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে (সিসিইউ) থাকা অবস্থায় বৃহস্পতিবার তিনি মারা যান। এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেও একই ধরনের সমস্যার কারণে অধ্যাপক আনিসুজ্জামানকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

Tag :

চলে গেলেন না ফেরার দেশে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান

Update Time : ০২:৫৯:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মে ২০২০

বনলতা নিউজ ডেস্ক.  

চলে গেলেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নালিল্লাহি রাজিউন)। বৃহস্পতিবার বিকালে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) তিনি মারা যান।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের ছেলে আনন্দ জামান বলেন, ‘আমার বাবা সিএমএইচে ভর্তি ছিলেন। বিকাল ৪টা ৫৫ মিনিটে বাবা মারা গেছেন।’

এর আগে বার্ধক্যজনিত সমস্যার কারণে গত ২৭ এপ্রিল রাজধানীর ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতালে ভর্তি হন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। সেখানে চিফ কার্ডিওলজিস্ট অধ্যাপক খন্দকার কামরুল ইসলামের অধীনে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি।

পরে প্রত্যাশিত উন্নতির লক্ষণ দেখতে না পাওয়ায় চিকিৎসকেরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখেন। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় গত ৯ মে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) স্থানান্তর করা হয়।

সেখানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে (সিসিইউ) থাকা অবস্থায় বৃহস্পতিবার তিনি মারা যান। এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেও একই ধরনের সমস্যার কারণে অধ্যাপক আনিসুজ্জামানকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।