বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করা সেই বৃদ্ধ

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৪৮:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ মে ২০২০
  • ১২৩ Time View

বনলতা নিউজ ডেস্ক.

কিশোরীকে বিয়ে করা সেই বৃদ্ধ বর রিক্সাচালক সামছুল হককে গ্রেপ্তার করেছে কুমিল্লার লালমাই থানা পুলিশ। এ সময় সামছুল হকের সাথে থাকা ওই কিশোরীকেও উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হরিশ্চরস্থ একটি ভাড়া বাসা থেকে তাকে আটক করে লালমাই থানা পুলিশ।

ভিকটিমের পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, লালমাই উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের পশ্চিম পেরুল গ্রামের ইমান হোসেন ঢাকায় চাকরি করেন। সে কারনে গ্রামে তার মেয়েকে স্কুলে আনা-নেওয়া ও পরিবারের দেখভাল করার জন্য কেয়ারটেকার রাখেন একই গ্রামের রিক্সা চালক সামছল হককে।

সে সুবাধে ইমান হোসেনের ২য় মেয়ে (১৩) ৮ম শ্রেণির ছাত্রী মরিউমকে রিক্সায় নিয়মিত স্কুলে আনা নেওয়া করতেন সামছুল হক। একপর্যায়ে রিক্সাচালক ৬৫ বছর বয়সী সামছুল হক কৌশলে প্রেমের ফাঁদে পেলেন ওই স্কুল ছাত্রীকে। ওই ছাত্রীর মাকে মেয়ে ডেকে বিভিন্ন অজুহাতে প্রায়ই তিনি ওই বাড়ীতে রাত্রীযাপন করতেন। এ নিয়ে স্থানীয়রা আপত্তি করলে, তিনি প্রাপ্ত বয়স হলে কিশোরী ছাত্রীর সঙ্গে মনির নামে তার নিজ ছেলের বিয়ে দেয়ার কথা বলে প্রচার করেন।

কিন্তু গত ১০ মে রবিবার ৬০ বছরের সামছুল হক সবাইকে হতবাক করে বছরের ১৩ কিশোরীকে নিয়ে উধাও হয়ে যান। এনিয়ে স্থানীয়দের প্রতিবাদের প্রেক্ষিতে ১১ মে সোমবার পেরুল দক্ষিণ ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হক ও কিশোরীকে ইউপি কার্যালয়ে হাজির করে বিস্তারিত জানতে চান।

Tag :

অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করা সেই বৃদ্ধ

Update Time : ০৮:৪৮:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ মে ২০২০

বনলতা নিউজ ডেস্ক.

কিশোরীকে বিয়ে করা সেই বৃদ্ধ বর রিক্সাচালক সামছুল হককে গ্রেপ্তার করেছে কুমিল্লার লালমাই থানা পুলিশ। এ সময় সামছুল হকের সাথে থাকা ওই কিশোরীকেও উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হরিশ্চরস্থ একটি ভাড়া বাসা থেকে তাকে আটক করে লালমাই থানা পুলিশ।

ভিকটিমের পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, লালমাই উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের পশ্চিম পেরুল গ্রামের ইমান হোসেন ঢাকায় চাকরি করেন। সে কারনে গ্রামে তার মেয়েকে স্কুলে আনা-নেওয়া ও পরিবারের দেখভাল করার জন্য কেয়ারটেকার রাখেন একই গ্রামের রিক্সা চালক সামছল হককে।

সে সুবাধে ইমান হোসেনের ২য় মেয়ে (১৩) ৮ম শ্রেণির ছাত্রী মরিউমকে রিক্সায় নিয়মিত স্কুলে আনা নেওয়া করতেন সামছুল হক। একপর্যায়ে রিক্সাচালক ৬৫ বছর বয়সী সামছুল হক কৌশলে প্রেমের ফাঁদে পেলেন ওই স্কুল ছাত্রীকে। ওই ছাত্রীর মাকে মেয়ে ডেকে বিভিন্ন অজুহাতে প্রায়ই তিনি ওই বাড়ীতে রাত্রীযাপন করতেন। এ নিয়ে স্থানীয়রা আপত্তি করলে, তিনি প্রাপ্ত বয়স হলে কিশোরী ছাত্রীর সঙ্গে মনির নামে তার নিজ ছেলের বিয়ে দেয়ার কথা বলে প্রচার করেন।

কিন্তু গত ১০ মে রবিবার ৬০ বছরের সামছুল হক সবাইকে হতবাক করে বছরের ১৩ কিশোরীকে নিয়ে উধাও হয়ে যান। এনিয়ে স্থানীয়দের প্রতিবাদের প্রেক্ষিতে ১১ মে সোমবার পেরুল দক্ষিণ ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হক ও কিশোরীকে ইউপি কার্যালয়ে হাজির করে বিস্তারিত জানতে চান।