বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

করোনায় খাবারের অভাবে মনোকষ্টে বানরগুলো

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৫৯:৪৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ মে ২০২০
  • ১৫৮ Time View

ফুলবাড়িয়া প্রতিনিধি.

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার সন্তোষপুর গজারী বনে প্রায় ৪ শতাধিক বানর খাদ্যের অভাবে শুকিয়ে যাচ্ছে। এই স্পটে শত শত পর্যটকদের সমাগম ঘটতো। তারা বানর গুলোর সঙ্গে সেলফি তুলতেন, খেলা করার পাশাপাশি বানরগুলোকে বিভিন্ন খাদ্য খাওয়াতেন। সন্তোষপুরের সামাজিক বানর স্পটকে ঘিরে গড়ে উঠেছিল কিছু অস্থায়ী দোকানপাট। যেখান থেকে খাদ্য দ্রব্য ক্রয় করে বানরগুলোকে খেতে দিতেন বহিরাগত পর্যটকরা।

সন্তোষপুর বিট অফিস সূত্রে জানা গেছে, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বানরগুলোর জন্য ২টন চাউল বরাদ্দ দেন। যা প্রতি দিন ২০ কেজি করে বানরগুলোকে খাওয়ানোর জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়। বানরগুলোকে প্রতিদিন সকাল ১০ কেজি, বিকালে ১০ কেজি করে খাবার দেয়া হয়। যা প্রয়োজনের তুলনায় সামান্য।

এলাবাসী জানান, বানরগুলি স্পটে পর্যাপ্ত খাদ্য না পেয়ে আশপাশের ফসলি জমিগুলোতে ফসলের ক্ষতি সাধন করছে।

এ ব্যাপারে বিট অফিসের বনপ্রহরী আয়ুব আলী জানান, স্পটে আগে লোকজন আসতো, খাবারে অভাব ছিল না, এখন আমরা ডিসি মহোদয়ের দেয়া ২ টন চাউল পেয়েছি বানরের খাবার হিসাবে। সেগুলি প্রতিদিন সকাল-বিকালে দিচ্ছি।

Tag :
Popular Post

করোনায় খাবারের অভাবে মনোকষ্টে বানরগুলো

Update Time : ০৮:৫৯:৪৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ মে ২০২০

ফুলবাড়িয়া প্রতিনিধি.

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার সন্তোষপুর গজারী বনে প্রায় ৪ শতাধিক বানর খাদ্যের অভাবে শুকিয়ে যাচ্ছে। এই স্পটে শত শত পর্যটকদের সমাগম ঘটতো। তারা বানর গুলোর সঙ্গে সেলফি তুলতেন, খেলা করার পাশাপাশি বানরগুলোকে বিভিন্ন খাদ্য খাওয়াতেন। সন্তোষপুরের সামাজিক বানর স্পটকে ঘিরে গড়ে উঠেছিল কিছু অস্থায়ী দোকানপাট। যেখান থেকে খাদ্য দ্রব্য ক্রয় করে বানরগুলোকে খেতে দিতেন বহিরাগত পর্যটকরা।

সন্তোষপুর বিট অফিস সূত্রে জানা গেছে, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বানরগুলোর জন্য ২টন চাউল বরাদ্দ দেন। যা প্রতি দিন ২০ কেজি করে বানরগুলোকে খাওয়ানোর জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়। বানরগুলোকে প্রতিদিন সকাল ১০ কেজি, বিকালে ১০ কেজি করে খাবার দেয়া হয়। যা প্রয়োজনের তুলনায় সামান্য।

এলাবাসী জানান, বানরগুলি স্পটে পর্যাপ্ত খাদ্য না পেয়ে আশপাশের ফসলি জমিগুলোতে ফসলের ক্ষতি সাধন করছে।

এ ব্যাপারে বিট অফিসের বনপ্রহরী আয়ুব আলী জানান, স্পটে আগে লোকজন আসতো, খাবারে অভাব ছিল না, এখন আমরা ডিসি মহোদয়ের দেয়া ২ টন চাউল পেয়েছি বানরের খাবার হিসাবে। সেগুলি প্রতিদিন সকাল-বিকালে দিচ্ছি।