শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খুলনায় সরকারি চাল চুরির অভিযোগে আ. লীগ নেতা গ্রেপ্তার

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৭:৪২:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ মে ২০২০
  • ১৫৬ Time View

খুলনার তেরখাদা উপজেলায় সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা মূল্যের চাল চুরির অভিযোগে সারাফাত হোসেন নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি তেরখাদা উপজেলার আজগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি ওই এলাকায় ১০ টাকা মূল্যে সরকারি চাল বিতরণের ডিলার।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) ও তেরোখাদা থানা–পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে উপজেলার শেখপুরা বাজার থেকে সারাফাতকে আটক করে।

এনএসআই কর্মকর্তা ও তেরখাদা থানা সূত্রে জানা গেছে, তেরখাদা উপজেলার বলরামপুর গ্রামের ৬ ব্যক্তির চাল দীর্ঘদিন ধরে ডিলার সারাফাত আত্মসাৎ করেছেন। চাল না পাওয়া ওই ৬ ব্যক্তি হলেন বলরামপুরের সৈয়দ সাহজাহান, সৈয়দ ফুরবান আলী, অনুপ কুমার মন্ডল, অনাদী বিশ্বাস, মো. মিতুন আলী ও বিমল সমদ্দার। ওই ৬ জনকে না জানিয়ে তাঁদের নামে কার্ড তৈরি করেছেন সারাফাত। ওই কার্ড দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চাল তুলে আত্মসাৎ করছেন তিনি। অথচ ব্যাপারটি ওই কার্ডধারীরা জানতেন না। কিছুদিন আগে তাঁরা জানতে পারেন, তাঁদের নামে কার্ড করা আছে।
তেরখাদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তাফা বলেন, ১০ টাকা মূল্যের সরকারি চাল চুরির অভিযোগে সারাফাতকে আটক করা হয়। ভুক্তভোগী ৬ জন গতকাল রাতে থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

Tag :
Popular Post

খুলনায় সরকারি চাল চুরির অভিযোগে আ. লীগ নেতা গ্রেপ্তার

Update Time : ০৭:৪২:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ মে ২০২০

খুলনার তেরখাদা উপজেলায় সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা মূল্যের চাল চুরির অভিযোগে সারাফাত হোসেন নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি তেরখাদা উপজেলার আজগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি ওই এলাকায় ১০ টাকা মূল্যে সরকারি চাল বিতরণের ডিলার।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) ও তেরোখাদা থানা–পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে উপজেলার শেখপুরা বাজার থেকে সারাফাতকে আটক করে।

এনএসআই কর্মকর্তা ও তেরখাদা থানা সূত্রে জানা গেছে, তেরখাদা উপজেলার বলরামপুর গ্রামের ৬ ব্যক্তির চাল দীর্ঘদিন ধরে ডিলার সারাফাত আত্মসাৎ করেছেন। চাল না পাওয়া ওই ৬ ব্যক্তি হলেন বলরামপুরের সৈয়দ সাহজাহান, সৈয়দ ফুরবান আলী, অনুপ কুমার মন্ডল, অনাদী বিশ্বাস, মো. মিতুন আলী ও বিমল সমদ্দার। ওই ৬ জনকে না জানিয়ে তাঁদের নামে কার্ড তৈরি করেছেন সারাফাত। ওই কার্ড দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চাল তুলে আত্মসাৎ করছেন তিনি। অথচ ব্যাপারটি ওই কার্ডধারীরা জানতেন না। কিছুদিন আগে তাঁরা জানতে পারেন, তাঁদের নামে কার্ড করা আছে।
তেরখাদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তাফা বলেন, ১০ টাকা মূল্যের সরকারি চাল চুরির অভিযোগে সারাফাতকে আটক করা হয়। ভুক্তভোগী ৬ জন গতকাল রাতে থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।