বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গ্রামের ১২ লাখ যুবক হবেন আত্ম কর্মী

  • Reporter Name
  • Update Time : ০২:৪০:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মে ২০২০
  • ১৩৮ Time View

বনলতা নিউজ ডেস্ক.

করোনার প্রাদুর্ভাবে নগরে কর্মহীনদের যে বিশাল অংশ গ্রামে ফিরে গেছে, তাদের গ্রামে ধরে রাখতে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। তাদের জন্য গ্রামে কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য চলতি বছরে সাত হাজার কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে।

এমন তথ্য দিয়েছেন জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। বৃহস্পতিবার রাতে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) প্রতিষ্ঠান ইয়াং বাংলার ‘লেটস টক অন পোস্ট কোভিড-১৯ ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক এক অনলাইন আলোচনায় দিয়ে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, চলতি বছর ৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ‘আত্মকর্মংস্থান সৃষ্টি ও দরিদ্র হ্রাসকরণ প্রকল্প’ শুরু করতে যাচ্ছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে দেখলাম অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে যাবে বা মানুষ গ্রামে চলে যেতে পারে। আমরাও ভাবছি, এই শ্রেণির মানুষগুলোকে গ্রামে কীভাবে রেখে দেওয়া যায়। তারা যেন আর শহরমুখী না হয়, সেজন্য আমরা ‘আত্মকর্মংস্থান সৃষ্টি ও দরিদ্র হ্রাসকরণ প্রকল্প’ নিয়েছি।

তিনি জানান, ৭ হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্পের মাধ্যমে ১২ লাখ যুবককে ‘আত্মকর্মী’ হিসেবে তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। প্রতিমন্ত্রী জানান, কৃষি, মৎস্য খাতকে এ প্রকল্পে প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হবে। তারা যেন হতাশ না হয়ে যান, নিজেরাই কর্মসংস্থান তৈরি করে অন্যদের চাকরির সুযোগ দিতে পারেন।

Tag :
Popular Post

গ্রামের ১২ লাখ যুবক হবেন আত্ম কর্মী

Update Time : ০২:৪০:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মে ২০২০

বনলতা নিউজ ডেস্ক.

করোনার প্রাদুর্ভাবে নগরে কর্মহীনদের যে বিশাল অংশ গ্রামে ফিরে গেছে, তাদের গ্রামে ধরে রাখতে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। তাদের জন্য গ্রামে কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য চলতি বছরে সাত হাজার কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে।

এমন তথ্য দিয়েছেন জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। বৃহস্পতিবার রাতে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) প্রতিষ্ঠান ইয়াং বাংলার ‘লেটস টক অন পোস্ট কোভিড-১৯ ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক এক অনলাইন আলোচনায় দিয়ে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, চলতি বছর ৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ‘আত্মকর্মংস্থান সৃষ্টি ও দরিদ্র হ্রাসকরণ প্রকল্প’ শুরু করতে যাচ্ছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে দেখলাম অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে যাবে বা মানুষ গ্রামে চলে যেতে পারে। আমরাও ভাবছি, এই শ্রেণির মানুষগুলোকে গ্রামে কীভাবে রেখে দেওয়া যায়। তারা যেন আর শহরমুখী না হয়, সেজন্য আমরা ‘আত্মকর্মংস্থান সৃষ্টি ও দরিদ্র হ্রাসকরণ প্রকল্প’ নিয়েছি।

তিনি জানান, ৭ হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্পের মাধ্যমে ১২ লাখ যুবককে ‘আত্মকর্মী’ হিসেবে তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। প্রতিমন্ত্রী জানান, কৃষি, মৎস্য খাতকে এ প্রকল্পে প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হবে। তারা যেন হতাশ না হয়ে যান, নিজেরাই কর্মসংস্থান তৈরি করে অন্যদের চাকরির সুযোগ দিতে পারেন।