সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গুরুদাসপুরে শিশু ধর্ষন চেষ্টায় রানা ফকির নামে এক যুবক আটক

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৫:৫৭:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০
  • ৮১ Time View

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি.
গুরুদাসপুরে ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে রানা ফকির (২২) নামে এক যুবককে আটক করেছে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পৌর সদরের আনন্দ নগর গ্রামে।
শিশুটির পিতা জাকির হোসেন জানান, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পাশ^বর্তী বামনকোলা গ্রামের মিলন হোসেনের শিশু ছেলে মেহেদী (৮) আমাদের বাড়িতে তার মায়ের সাথে বেড়াতে আসে। সোমবার (ঈদের দিন) দুপুরে আমার মেয়ে ভাত খেতে বসে। এমন সময় মেহেদী আমার শিশুকে বলে রানা ভাই তোমাকে ডাকছে। ওই সময়ে মেহেদী ওই শিশুকে ভুলিয়ে রানার কাছে নিয়ে গেলে রানা সুকৌশলে ওই শিশুটিকে ভূট্টার জমিতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে সেচ পাম্পের ভাওর ঘরের মধ্যে শিশুকে চোখ বেঁধে জোর করে যৌন উত্তেজক সিরাপ সেবন করিয়ে তাকে ধর্ষন করার চেষ্টা করে রানা। এমন সময় ওই শিশুটির চিৎকার শুনে শিশু মেহেদী এগিয়ে গেলে অভিযুক্ত রানা ফকির তাদের রেখে চলে যায়। পরে শিশুটি দুপুরে এসে ঘটনাটি তার মাকে জানায়। জিজ্ঞাসাবাদে রানা এলাকাবাসির কাছে তার অপকর্মের কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসি।
এঘটনায় শিশুটির পিতা জাকির হোসেন বাদী হয়ে সন্ধ্যায় গুরুদাসপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। রাতেই গুরুদাসপুর থানার এস আই শহিদুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রানা ফকিরকে আটক করেন। রানা ফকির ওই গ্রামের ইমদাদুল ফকিরের ছেলে।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন, ধর্ষন চেষ্টার মামলা রুজু করে অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।

Tag :
Popular Post

গুরুদাসপুরে শিশু ধর্ষন চেষ্টায় রানা ফকির নামে এক যুবক আটক

Update Time : ০৫:৫৭:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি.
গুরুদাসপুরে ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে রানা ফকির (২২) নামে এক যুবককে আটক করেছে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পৌর সদরের আনন্দ নগর গ্রামে।
শিশুটির পিতা জাকির হোসেন জানান, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পাশ^বর্তী বামনকোলা গ্রামের মিলন হোসেনের শিশু ছেলে মেহেদী (৮) আমাদের বাড়িতে তার মায়ের সাথে বেড়াতে আসে। সোমবার (ঈদের দিন) দুপুরে আমার মেয়ে ভাত খেতে বসে। এমন সময় মেহেদী আমার শিশুকে বলে রানা ভাই তোমাকে ডাকছে। ওই সময়ে মেহেদী ওই শিশুকে ভুলিয়ে রানার কাছে নিয়ে গেলে রানা সুকৌশলে ওই শিশুটিকে ভূট্টার জমিতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে সেচ পাম্পের ভাওর ঘরের মধ্যে শিশুকে চোখ বেঁধে জোর করে যৌন উত্তেজক সিরাপ সেবন করিয়ে তাকে ধর্ষন করার চেষ্টা করে রানা। এমন সময় ওই শিশুটির চিৎকার শুনে শিশু মেহেদী এগিয়ে গেলে অভিযুক্ত রানা ফকির তাদের রেখে চলে যায়। পরে শিশুটি দুপুরে এসে ঘটনাটি তার মাকে জানায়। জিজ্ঞাসাবাদে রানা এলাকাবাসির কাছে তার অপকর্মের কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসি।
এঘটনায় শিশুটির পিতা জাকির হোসেন বাদী হয়ে সন্ধ্যায় গুরুদাসপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। রাতেই গুরুদাসপুর থানার এস আই শহিদুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রানা ফকিরকে আটক করেন। রানা ফকির ওই গ্রামের ইমদাদুল ফকিরের ছেলে।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন, ধর্ষন চেষ্টার মামলা রুজু করে অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে।