বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গুরুদাসপুরে চা ষ্টলে পুলিশের অভিযান টিভি ক্যারাম জব্দ!

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৫:১৮:২১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুন ২০২০
  • ৩৬ Time View

বিশেষ প্রতিবেদক দৈনিক বনলতা.
সন্ধ্যার পর পথেঘাটে ঘোরাফেরা কিংবা চায়ের দোকা নে আড্ডারত মানুষদের ঘরমুখী করতে বিশেষ অভিযান শুরু করেছ গুরুদাসপুর থানা পুলিশ।

রোববার (২২ জুন) সন্ধ্যে ৭ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৮ টি টিভি এবং ১০টি ক্যারাম বোর্ড জব্দ করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ সময় দোকান মালিকদেরকেও সতর্ক করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো,মোজাহারুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যার পর চায়ের দোকান এবং বিভিন্ন পয়েন্টসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে আড্ডা দিয়ে সময় নষ্ট করছে এবং করোনায় পুলিশের বিধি নিষেধ মানছে না। এসপি স্যারের নির্দেশনায় গতকাল থেকেই স্থানীয় দোকানদার ও জনপ্রতিনিধিদের অবগত করার পরও তারা কোন আইনের তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন জায়গায় অযথা আড্ডা দিচ্ছে। এ জন্য আমরা বিশেষ অভিযানে নেমেছি যা করোনাকাল শেষ না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এতে সবাই নিরাপদে থাকবে। পাশাপাশি গ্যাং কালচার রোধ হবে। একই সঙ্গে ছেলে-মেয়েরা লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করতে পারবে।
এ বিশেষ অভিযানে গুরুদাসপুর থানা পুলিশের সদস্যরা অংশ গ্রহন করেন।

Tag :

গুরুদাসপুরে চা ষ্টলে পুলিশের অভিযান টিভি ক্যারাম জব্দ!

Update Time : ০৫:১৮:২১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুন ২০২০

বিশেষ প্রতিবেদক দৈনিক বনলতা.
সন্ধ্যার পর পথেঘাটে ঘোরাফেরা কিংবা চায়ের দোকা নে আড্ডারত মানুষদের ঘরমুখী করতে বিশেষ অভিযান শুরু করেছ গুরুদাসপুর থানা পুলিশ।

রোববার (২২ জুন) সন্ধ্যে ৭ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৮ টি টিভি এবং ১০টি ক্যারাম বোর্ড জব্দ করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ সময় দোকান মালিকদেরকেও সতর্ক করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো,মোজাহারুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যার পর চায়ের দোকান এবং বিভিন্ন পয়েন্টসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে আড্ডা দিয়ে সময় নষ্ট করছে এবং করোনায় পুলিশের বিধি নিষেধ মানছে না। এসপি স্যারের নির্দেশনায় গতকাল থেকেই স্থানীয় দোকানদার ও জনপ্রতিনিধিদের অবগত করার পরও তারা কোন আইনের তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন জায়গায় অযথা আড্ডা দিচ্ছে। এ জন্য আমরা বিশেষ অভিযানে নেমেছি যা করোনাকাল শেষ না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এতে সবাই নিরাপদে থাকবে। পাশাপাশি গ্যাং কালচার রোধ হবে। একই সঙ্গে ছেলে-মেয়েরা লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করতে পারবে।
এ বিশেষ অভিযানে গুরুদাসপুর থানা পুলিশের সদস্যরা অংশ গ্রহন করেন।