বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আদালত চালুর দাবীতে রাজশাহীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:২৮:২৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জুন ২০২০
  • ৬২ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী.

নিয়মিতভাবে আদালত চালুর দাবীতে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে মানববন্ধন করেন রাজশাহীর আইনজীবীরা। রাজশাহী এডভোকেট বার এসোসিয়েশনের আয়োজনে মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন অত্র এসোসিয়েশনের সভাপতি এডভোকেট মোজাম্মেল হক। মানববন্ধন পরিচালনা করেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট পারভজে তৌফিক জাহেদী।
এসময়ে রাজশাহী বার এসোসিয়েনের সদস্য এবং সাধারণ আইনজীবীগণ অংশ গ্রহন করেন।
উপস্থিত নেতৃবৃন্দ বলেন, ভার্চুয়াল কোর্ট দিয়ে মানুষের সমস্যা সমাধান করা সম্ভব নয়। এই কোর্টের মাধ্যমে শুধু হাজতে যারা আছেন তাদের জামিন করনো যায়। নতুন করে কোন প্রকার মামলা না হওয়ায় দেশে অপরাধের সংখ্যা বাড়ছে। মানুষের একমাত্র সঠিক বিচার পাওয়া স্থান আদালত বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে হয়ে পড়েছে। আইনশৃংখলার অবনতি ঘটছে উল্লেখ করে দ্রুত সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গভাবে কোর্ট চালুর দাবী জানান তাঁরা।
তাঁরা আরো বলেন, আইনজীবীগণ সরকারীভাবে কোন বেতন পান না। মামলার উপরে তাদের একমাত্র আয়ের পথ। কিন্তু মার্চ মাসের ২৬ তারিখ থেকে কোর্ট বন্ধ থাকায় তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। না পারছেন কারো নিকট সহযোগিতা চাইতে, না পারছেন কারো নিকট বলতে। পরিবার পরিজন নিয়ে তারা অত্যন্ত খারাপ সময় পার করছেন বলে উল্লেখ করেন বক্তারা।
সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাঁদের বক্তব্যে বলেন, ৯ মে থেকে সরকার ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে সিমিত আকারে কোর্ট পরিচালনার জন্য অর্ডার দেন। কিন্তু এই কোর্টের মাধ্যমে কোন কাজই হচ্ছেনা। আদালত এক প্রকার বন্ধ থাকার সামিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে মানুষের কোন নিরাপত্তা থাকবে না। বিশেষ করে এই সময়ে বেশী করে জমি জালিয়াতির প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে। এতে করে সামাজিক কলহ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
তাঁরা আরো বলেন, আদালত বন্ধ থাকায় একদিকে যেমন জনগণ ও আইনজীবীগণ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে, তেমনি সরকারও কোটি কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে। এই অবস্থা থেকে উত্তোরণের একমাত্র পথ হচ্ছে দ্রুত আদালত খুলে দেয়া। তাঁরা বলেন, সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে যদি সকল সরকারী বেসরকারী অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চলতে পারে তাহলে আদালত চলতে বাধা কোথায়। সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে আদালত চালুর দাবী জানান তাঁরা।

Tag :
Popular Post

আদালত চালুর দাবীতে রাজশাহীতে আইনজীবীদের মানববন্ধন

Update Time : ০৯:২৮:২৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জুন ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী.

নিয়মিতভাবে আদালত চালুর দাবীতে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে মানববন্ধন করেন রাজশাহীর আইনজীবীরা। রাজশাহী এডভোকেট বার এসোসিয়েশনের আয়োজনে মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন অত্র এসোসিয়েশনের সভাপতি এডভোকেট মোজাম্মেল হক। মানববন্ধন পরিচালনা করেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট পারভজে তৌফিক জাহেদী।
এসময়ে রাজশাহী বার এসোসিয়েনের সদস্য এবং সাধারণ আইনজীবীগণ অংশ গ্রহন করেন।
উপস্থিত নেতৃবৃন্দ বলেন, ভার্চুয়াল কোর্ট দিয়ে মানুষের সমস্যা সমাধান করা সম্ভব নয়। এই কোর্টের মাধ্যমে শুধু হাজতে যারা আছেন তাদের জামিন করনো যায়। নতুন করে কোন প্রকার মামলা না হওয়ায় দেশে অপরাধের সংখ্যা বাড়ছে। মানুষের একমাত্র সঠিক বিচার পাওয়া স্থান আদালত বন্ধ থাকায় সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে হয়ে পড়েছে। আইনশৃংখলার অবনতি ঘটছে উল্লেখ করে দ্রুত সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গভাবে কোর্ট চালুর দাবী জানান তাঁরা।
তাঁরা আরো বলেন, আইনজীবীগণ সরকারীভাবে কোন বেতন পান না। মামলার উপরে তাদের একমাত্র আয়ের পথ। কিন্তু মার্চ মাসের ২৬ তারিখ থেকে কোর্ট বন্ধ থাকায় তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। না পারছেন কারো নিকট সহযোগিতা চাইতে, না পারছেন কারো নিকট বলতে। পরিবার পরিজন নিয়ে তারা অত্যন্ত খারাপ সময় পার করছেন বলে উল্লেখ করেন বক্তারা।
সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাঁদের বক্তব্যে বলেন, ৯ মে থেকে সরকার ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে সিমিত আকারে কোর্ট পরিচালনার জন্য অর্ডার দেন। কিন্তু এই কোর্টের মাধ্যমে কোন কাজই হচ্ছেনা। আদালত এক প্রকার বন্ধ থাকার সামিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে মানুষের কোন নিরাপত্তা থাকবে না। বিশেষ করে এই সময়ে বেশী করে জমি জালিয়াতির প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে। এতে করে সামাজিক কলহ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
তাঁরা আরো বলেন, আদালত বন্ধ থাকায় একদিকে যেমন জনগণ ও আইনজীবীগণ ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে, তেমনি সরকারও কোটি কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে। এই অবস্থা থেকে উত্তোরণের একমাত্র পথ হচ্ছে দ্রুত আদালত খুলে দেয়া। তাঁরা বলেন, সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে যদি সকল সরকারী বেসরকারী অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চলতে পারে তাহলে আদালত চলতে বাধা কোথায়। সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে আদালত চালুর দাবী জানান তাঁরা।