সাংসদ আব্দুল কুদ্দুসের মহানুভবতা

Md MagemMd Magem
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:২৩ AM, ০২ ডিসেম্বর ২০২০

বিশেষ প্রতিবেদক.
হাসান খান (৭৫) নাটোর-পাবনা মহাসড়কে বনপাড়া পৌরসভার আইল্যান্ডে বসে ভিক্ষা করতো । বৃদ্ধ বয়সেও ছেলে-মেয়েরা তাকে দেখা শোনা করতো না। নিত না তার দায় দায়িত্ব। রাস্তায় বসেই করতো ভিক্ষা বৃত্তি। বয়সের ভারে নুয়ে পরা ওই বৃদ্ধ উপায়ান্ত না পেয়ে একদিন বড়াইগ্রাম ইউএনও কার্যালয়ে গিয়ে তিনি তার কষ্টের কথাগুলো খুলে বলেন ইউএনও মহাদয়কে। তিনি জানান রাস্তার পাশে বসে ভিক্ষা করতে খুব কষ্ট হয় তার। কিন্তু ভিক্ষা না করলেও আবার না খেয়ে থাকতে হয়। এমন অবস্থা দেখে ইউএনও তাকে তাৎক্ষণিক কিছু আর্থিক সহায়তা দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেন। পরে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপির সাথে পরামর্শ করে প্রধানমন্ত্রীর ভিক্ষুক পূর্নবাসন তহবিল থেকে একটি চার্জার ভ্যান কিনে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সেই ভ্যান চালাবেন হাসান খানের জামাতা সেকেন্দার আলী। শর্ত সাপেক্ষে তিনি প্রতিদিন ২শ করে টাকা দিবেন হাসান খানকে। হাসান খান মারা গেলে তার স্ত্রী পাবেন সেই টাকা। এ বিষয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে একটি লিখিত চুক্তি করে ভ্যান গাড়ী হস্তান্তর করা হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৬১-নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর বড়াইগ্রাম) আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য, সাবেক মৎস্য ও পশু সম্পদ প্রতিমন্ত্রী, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যাপক মো: আব্দুল কুদ্দুস এমপি, বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান, সমাজসেবা কর্মকর্তা সোহেল রানা, ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া কলি প্রমূখ।

এ সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আব্দুল কুদ্দুস বলেন ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধে সরকার কাজ করছে। ভিক্ষুকদের পূর্নবাসনে প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ নেয়া হবে। হাসান খানের মতো ক্রমান্বয়ে উপজেলার সকল ভিক্ষুককে পূর্নবাসন করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :