গুরুদাসপুরে গভীর রাতে কৃষকের ৬ বিঘা জমির ফসল কেটে নেওয়ার অভিযোগ

Md MagemMd Magem
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:৩৩ PM, ০৩ এপ্রিল ২০২১
DCIM100MEDIADJI_0135.JPG

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি.
নাটোরের গুরুদাসপুরে শহিদুল ইসলাম নামের এক কৃষকের ৬ বিঘা জমির ফসল (গম) কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের নওপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ওই এলাকার মৃত-কুদরত আলী সরদারের ছেলে। এ ঘটনায় কৃষক শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে ৮ জনের নামে গুরুদাসপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

সরেজমীনে গিয়ে জানাযায়, নওপাড়া মৌজার নওপাড়া মাঠে শহিদুল ইসলামের ৬ বিঘা জমি রয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ সেই জমিতে চাষাবাদ করে আসছেন। তবে মাঝে মধ্যেই জমির পাশেই অবস্থিত কয়েকজন বাসিন্দা মৃত-ময়দান সরকারের ছেলে সাহের আলী সরকার, মোঃ মোবারক সরকারের ছেলে শামসুল হক ও শামীম হোসেনসহ আরো ৪-৫ জন ব্যক্তি জমি তাদের দাবি করে ফসল কেটে নেয়। প্রতিবাদ করলে খুন জখমের হুমকী দিয়ে থাকেন তারা।

কৃষক শহিদুল ইসলাম জানান, পরিবারে স্ত্রী ও দুই ছেলে নিয়ে তার সংসার। ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা ও সংসারের খরচ সেই জমির ফসল উৎপাদনের টাকা এবং অন্যের জমিতে শ্রম বিক্রি করে চলে। শুক্রবার গভীর রাতে ২০/২৫ জন অজ্ঞাত নামা লোক হাতে ধারালো হাসুয়া,ধারালো কাঁচি, লাঠী সোটা নিয়ে জোড়পুর্বক তার জমির ফসল (গম) কেটে নিয়ে যায়। যার পরিমাণ প্রায় ১০০ মন এবং বাজার মুল্য ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা। অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তার জমির মালিকানা দাবি করেন। কিন্তু এই জমি নিয়ে কোর্টে মামলা চলমান রয়েছে। তিনি ফসল কাটার সাথে জড়িত সকল ব্যক্তিদের দ্রুত বিচার দাবি করেন।

অভিযুক্ত শামসুল হক জানালেন, আমাদের জমির ফসল আমরাই কেটেছি। তবে রাতের আঁধারে কেন ফসল কাটলেন এ প্রশ্নের তিনি এড়িয়ে যান।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, অভিযোগ পেয়েছি। সরেজমিনে গিয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :