গুরুদাসপুরে ৭ বছরে শিশুকে গলাকেটে হত্যা

banalatabanalata
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৪৬ PM, ০৬ মে ২০২১

গুরুদাসপুর নাটোর প্রতিনিধি.
নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার বিয়াঘাট ইউনিয়নের সাবগাড়ী গ্রামে নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে মহিবুল্লাহ (৭) নামের এক শিশু খুন হলেন দুর্বৃত্তদের হাতে।
স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, মাস খানেক আগে শিশু মহিবুল্লাহ সাবগাড়ী ভিটাপাড়া মহল্লার নানা দেরাজ মোল্লার বাড়িতে মায়ের সাথে বেড়াতে আসে। আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে বাসা থেকে দামী এন্ড্রয়েট ফোন হাতে নিয়ে বাসা থেকে বের হয়।
বিকেলে থেকে সন্ধ্যা নাগাদ বাসায় না ফেরায় অনেক খোজাখুজির পর এলাকায় মাইকিং করা হয়। পরে এক পর্যায়ে রাত ৯টার দিকে বাড়ি থেকে আধা কি,মি দূরে  ভুট্রার জমিতে প্রতিবেশীরা তার বস্তা বন্দি গলাকাটা লাশ দেখতে পায়। পরে গুরুদাসপুর থানা পুলিশকে জানালে। থানার ওসি মো আব্দুর রাজ্জাকসহ সঙ্গীয় ফোর্সসহ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। শিশুটির বাবার নাম ইশা খান তিনি পেশায় একজন গ্রাম্য ডাক্তার। গ্রাম সিংড়া থানার চামারি ইউনিয়নর গুটিয়া মহিষমারী। শিশুটিকে নাটোর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
এ ঘটনায় পরিবারে শোকের ছায়া নেমে আসে। স্থানীয়দের ধারণা শিশুটি এন্ড্রয়েড ফোনের কারণেই খুন হতে পারে।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হবে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :