শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

  • Reporter Name
  • Update Time : ১১:৪০:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১
  • ৪৯৩ Time View

বনলতা ডেস্ক.

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নারায়ণগঞ্জসহ দেশের সাত জেলায় নতুন করে লকডাউন দেয়া হয়েছে। এতে কোনো গণপরিবহন নারায়ণগঞ্জে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। প্রথম দিন সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকা থেকে দুই শতাধিক যানবাহন ফিরিয়ে দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (২২ জুন) সকাল থেকে মহাসড়কের সাতটি পুলিশের তল্লাশি চৌকি ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড, মদনপুর, রূপগঞ্জের তারাব, সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল, সোনারগাঁয়ের মেঘনা, আড়াইহাজারের পুরিন্দা ও রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইলে এ তল্লাশি চৌকি বনানো হয়। তাছাড়া পুলিশ ও র‌্যাব বিভিন্ন স্থানে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করছে।

এদিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় সকাল ৬টা থেকে অবস্থান নেয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম রেজা মাসুম বলেন, জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় লকডাউন কঠোরভাবে পালনের জন্য সাইনবোর্ড এলাকায় জেলার অভ্যন্তরে প্রবেশ ও বের হওয়ায় মুখ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। জেলার অভ্যন্তরে কোনো পরিবহন আমরা ঢুকতে দিচ্ছি না। এ পর্যন্ত ২০০ থেকে ২৫০ যানবাহন ফিরিয়ে দিয়েছি।

কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, নারায়ণগঞ্জে সাতটি তল্লাশি চৌকি স্থাপন করা হয়েছে। লকডাউন না মানার কোনো সুযোগ নেই। জীবনকে আগে গুরুত্ব দিয়ে সরকারি নির্দেশনা পুরোপুরি পালন করতে হবে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ২২ জুন সকাল ৬টা থেকে আগামী ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এই সময় সব ধরনের গণপরিবহন এবং দোকানপাট বন্ধ থাকবে। জরুরিসেবা যেমন- ওষুধ, জরুরি খাদ্য, কৃষি ও শিল্প উপকরণ পরিবহন লকডাউনের আওতার বাইরে থাকবে।

Tag :
Popular Post

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

Update Time : ১১:৪০:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১

বনলতা ডেস্ক.

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নারায়ণগঞ্জসহ দেশের সাত জেলায় নতুন করে লকডাউন দেয়া হয়েছে। এতে কোনো গণপরিবহন নারায়ণগঞ্জে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। প্রথম দিন সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকা থেকে দুই শতাধিক যানবাহন ফিরিয়ে দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (২২ জুন) সকাল থেকে মহাসড়কের সাতটি পুলিশের তল্লাশি চৌকি ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড, মদনপুর, রূপগঞ্জের তারাব, সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল, সোনারগাঁয়ের মেঘনা, আড়াইহাজারের পুরিন্দা ও রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইলে এ তল্লাশি চৌকি বনানো হয়। তাছাড়া পুলিশ ও র‌্যাব বিভিন্ন স্থানে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করছে।

এদিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় সকাল ৬টা থেকে অবস্থান নেয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম রেজা মাসুম বলেন, জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় লকডাউন কঠোরভাবে পালনের জন্য সাইনবোর্ড এলাকায় জেলার অভ্যন্তরে প্রবেশ ও বের হওয়ায় মুখ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। জেলার অভ্যন্তরে কোনো পরিবহন আমরা ঢুকতে দিচ্ছি না। এ পর্যন্ত ২০০ থেকে ২৫০ যানবাহন ফিরিয়ে দিয়েছি।

কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, নারায়ণগঞ্জে সাতটি তল্লাশি চৌকি স্থাপন করা হয়েছে। লকডাউন না মানার কোনো সুযোগ নেই। জীবনকে আগে গুরুত্ব দিয়ে সরকারি নির্দেশনা পুরোপুরি পালন করতে হবে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ২২ জুন সকাল ৬টা থেকে আগামী ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এই সময় সব ধরনের গণপরিবহন এবং দোকানপাট বন্ধ থাকবে। জরুরিসেবা যেমন- ওষুধ, জরুরি খাদ্য, কৃষি ও শিল্প উপকরণ পরিবহন লকডাউনের আওতার বাইরে থাকবে।