সংক্রমণ রোধে গুরুদাসপুরে চলছে কঠোর বিধিনিষেধ

মোঃ মাজেম আলীমোঃ মাজেম আলী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:১৬ PM, ২৩ জুলাই ২০২১

মোঃ শফিকুল ইসলাম গুরুদাসপুর প্রতিনিধি.

করোনা পরিস্থিতি এখানো নিয়ন্ত্রণহীন। একারণে আজ শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল ৬ টা থেকে নাটোরের গুরুদাসপুরে  কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কঠোর এই বিধি নিষেধের প্রথম দিনে উপজেলার ব্যস্ততম সড়কগুলো ফাঁকা দেখা গেছে। দুইএকটা রিক্সা থাকলেও কোন যানবাহন নেই। সড়কের মোড়ে মোড়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর নজরদারিতে রয়েছে।

আজ সকালে উপজেলার  খুবজীপুর ইউনিয়নের খুবজীপুর বাজার এলাকার,বিলশার বিভিন্ন পয়েন্ট, বিয়াঘাট,নাজিরপুর,মশিন্দা,ধারাবারিষা,চাপিলাসহ উপজেলার সকল জায়গায়   উপজেলা প্রশাসন,, পুলিশ,র‌্যাব ও সেনা টহল জোড়দার করা হয়েছে। এসকল এলাকায়  কোনো যানবাহন চলাচল করতে দেখা যায়নি। তবে রিক্স, ব্যক্তিগত মোটরসাইকেল ও  হালকা জরুরী পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল করতে দেখা গেছে। এসব গাড়িতেও তল্লাসি চালানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অনেককে জরিমানাও করা হয়েছে।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্ম কর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চেকপোষ্ট বসানো হয়েছে।এর আগে  গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) রাতে সাংবাদিকদের কথা প্রসংঙ্গে   এসব কথা জানান তিনি। তিনি আরো জানান আইন সকলের জন্য সমান। সবাইকে আইন মেনে চলারও আহবান জানান।

গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)  মোঃ তমাল হোসেন জানান, করোনা সংক্রমণ রোধে এই বিধিনিষেধ আগের চেয়ে কঠিন হবে। কঠোর এই বিধিনিষেধ বাস্তবায়ন করতে সেনাবাহিনী, বিজিবি ও পুলিশ কাজ করবে। তাছাড়া অফিস-আদালত, দোকানপাট-কলকারখানা সবকিছু বন্ধ থাকবে।

তিনি আরো বলেন, ঈদের ছুটিতে যারা গ্রামে এসেছেন তাদের ঘরের বাহিরে না এসে ঘরেই থাকতে বলা হয়েছে। কঠোর বিধিনিষেধের এই ১৪ দিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এসময় মানুষকে ঘরে থাকতে হবে। বেশি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাহিরে বের হওয়া যাবেনা। আশা করা যাচ্ছে ১৪ দিন কঠোর বিধিনিষেধ থাকলে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

আগামী ২৩ জুলাই সকাল ৬ টা থেকে কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়ে আগামী ৫ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত থাকবে। এবিষয়ে মন্ত্রী পরিষদ থেকে ১৩ জুলাই কঠোর বিধিনিষেধের ব্যপারে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন :