আজ মহাষ্টমী গুরুদাসপুরে ৩৪ টি পূজা মন্ডপে চলছে ভক্তদের আনন্দ উৎসব

মোঃ মাজেম আলীমোঃ মাজেম আলী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:৩১ PM, ১৩ অক্টোবর ২০২১

মোঃ মাজেম আলী মলিন.

শারদীয় উৎসবের আমেজ লেগে আছে পুরো উপজেলা জুড়ে। নীলাকাশে যেন সাদা মেঘের আভা লেগে রয়েছে। কাশফুলের অপরুপ দৃশ্য আর শিউলি ফুলের ঘ্রাণে পরিবেশে যেন সতেজতা বিড়াজ করছে। ঘাসের উপর শিশির বিন্দু জমতে শুরু করছে। গভীর রাতে শীতের আগমনী বার্তা জানান দিচ্ছে প্রকৃতিতে। এরই মধ্যে পূজা মন্ডপগুলো মুখরিত হচ্ছে ঢাকের বাদ্য, উলুধ্বনি আর শঙ্খের আওয়াজে। গুরুদাসপুরে ৩৪ পুজা মন্ডপ ও তার আশপাশে এলাকায় চলছে ওই উৎসবের আমেজ।

১১ অক্টোবর থেকেই মন্দিরগুলোতে ঠাকুর দর্শনের জন্য দর্শনার্থীদের ঢল নেমেছে। হাজার হাজার হিন্দু ভক্তরা বিভিন্ন মন্দিরে দুর্গাকে দর্শন ও প্রার্থনা-তর্পণে যাচ্ছেন। মুখরিত হয়ে উঠছে প্রতিটি মন্দির প্রাঙ্গণ।

মূলত উৎসবের জোয়ার নামেছে পূজায়। আর মাত্র দুটি দিবানিশির প্রহর পেরুলেই উমার কৈলাশ গমন। ‘ঠাকুর থাকবে কতক্ষণ’ এই সুর এখন ভক্ত মনে প্রাণে। আজ শারদীয় দুর্গাপূজার মহাষ্টমী।

সনাতন ধধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা। গতকাল বৃহস্পতিবার আনন্দ ও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যদিয়ে মহা অষ্টমী পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পূজায় এ বছর উপজেলায় মোট ৩৪টি মন্ডপে পুজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানান উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ধীরেন্দ্রনাথ ঘোষ ।

পুজা উৎসবকে পরিপূর্ণ রূপ দিতে মন্দিরে মন্দিরে সাজসজ্জায় সেজেছে এক অপরুপ দৃশ্য। শিল্পী তার নিপুণ হাতে রং তুলির আঁচড়ে ফুটিয়ে তুলছেন দেবী দুর্গা প্রতিমাগুলো। গত ১১ অক্টোবর সোমবার থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত ৫ দিন ব্যাপী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজা অনুষ্ঠিত হবে। ১৫ অক্টোবর দশমীতে বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটবে এই সার্বজনিন সারদীয় দুর্গা উৎসবের।

উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক অসিম কুমার পাল জানান, এ বছর উপজেলায় ৩৪টি পূজামন্ডপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজা। উৎসবমুখর পরিবেশে পূজামন্ডপগুলোতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে রেখেছেন। সরকারি ও পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা উদযাপন করা হচ্ছে।

গুরুদাসপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল মতিন বলেন, সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ন ভাবে সম্পুন্ন করার লক্ষে আইন শৃংখলা বাহিনী সজাগ দৃষ্টি রেখেছেন। আইন শৃংখলা বাহিনীর পক্ষ থেকে তিন স্থরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) দের বিভিন্ন মন্ডপের দায়িত্ব দিয়ে নিয়মিত টহল দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আশা করি এবারের পূজায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবেনা। তবে এ জন্য তিনি সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন।

গুরুদাসপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ তমাল হোসেন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বৈশিক করোনা পরিস্থিতি মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে থাকার কারনে গত বছরের তুলনায় এবারের পুজা সরকারী নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এবছর দেবী দুর্গা আসছেন ঘোড়ায় চড়ে যাবেন দোলায় চড়ে। দেবীর আগমনে বিশ্ব হবে শান্তিময়, অশুভ শক্তিকে বিনাশ করে উদয় হবে শুভ শক্তির এমনটাই প্রত্যাশা সনাতন ধর্মালম্বীদের।

আপনার মতামত লিখুন :