মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেয়ের সঙ্গে এসএসসি পাস করলেন ৪৪ বছরের ইউপি সদস্য

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ৪৪ বছর বয়সে মা নুরুন্নাহার ও মেয়ে নাসরিন আক্তার একসঙ্গে এসএসসি পাশ করেছেন। মা ও মেয়ে একসঙ্গে এসএসসি পাসের ঘটনায় নুরুন্নাহারের পরিবারে বইছে আনন্দের বন্যা। স্বজনরা অভিনন্দন জানাতে ছুটে আসছেন তার বাড়িতে।

রোববার (১২ মে) প্রকাশিত ফলাফলে কারিগর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মা নুরুন্নাহার জিপিএ ৪.৫৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। চাতলপাড় ওয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ‍্যালয় থেকে মেয়ে নাসরিন আক্তার ২.৬৭ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন।

নুরুন্নাহার জানান, অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় বিয়ে হয়ে যায়। শ্বশুর বাড়ির লোকজন ছিলেন রক্ষণশীল। এ অবস্থায় পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারিনি। দুইবার সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য নির্বাচিত হই। সবার অনুমতি নিয়ে আবার পড়াশোনা করি। কেননা, লেখাপড়ার কোনো বিকল্প নেই। আজ আমার আশা পূরণ হয়েছে। তবে পড়ালেখা করে এই বয়সে চাকরি করার ইচ্ছা নেই নুরুন্নাহারের। তবে এইচএসসিতে ভর্তি হবেন এবং পড়াশোনা চালিয়ে যাবেন বলে আশা ব‍্যক্ত করেন।

নুরুন্নাহার বেগম চাতলপাড় ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী আসন ১-২-৩ ওয়ার্ডের দুইবারের নির্বাচিত সদস্য। তিনি ২ সন্তানের জননী। ছেলে তেজগাঁও কলেজে পড়াশোনা করছে এবং মেয়ে নাসরিন এবার মায়ের সঙ্গে এসএসসি পাস করেছেন।

চাতলপাড় ওয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অঞ্জন কুমার বিশ্বাস বলেন, ইউপি সদস্য নুরুন্নাহারকে সবার অনুসরণ করা উচিত। শিক্ষার কোনো বয়স নেই। নুরুন্নাহার তার দৃষ্টান্ত। আমি তার কর্মময় জীবনের সফলতা কামনা করছি।

Tag :
About Author Information

Daily Banalata

Popular Post

মেয়ের সঙ্গে এসএসসি পাস করলেন ৪৪ বছরের ইউপি সদস্য

Update Time : ০৪:৩৯:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ৪৪ বছর বয়সে মা নুরুন্নাহার ও মেয়ে নাসরিন আক্তার একসঙ্গে এসএসসি পাশ করেছেন। মা ও মেয়ে একসঙ্গে এসএসসি পাসের ঘটনায় নুরুন্নাহারের পরিবারে বইছে আনন্দের বন্যা। স্বজনরা অভিনন্দন জানাতে ছুটে আসছেন তার বাড়িতে।

রোববার (১২ মে) প্রকাশিত ফলাফলে কারিগর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মা নুরুন্নাহার জিপিএ ৪.৫৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। চাতলপাড় ওয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ‍্যালয় থেকে মেয়ে নাসরিন আক্তার ২.৬৭ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন।

নুরুন্নাহার জানান, অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় বিয়ে হয়ে যায়। শ্বশুর বাড়ির লোকজন ছিলেন রক্ষণশীল। এ অবস্থায় পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারিনি। দুইবার সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য নির্বাচিত হই। সবার অনুমতি নিয়ে আবার পড়াশোনা করি। কেননা, লেখাপড়ার কোনো বিকল্প নেই। আজ আমার আশা পূরণ হয়েছে। তবে পড়ালেখা করে এই বয়সে চাকরি করার ইচ্ছা নেই নুরুন্নাহারের। তবে এইচএসসিতে ভর্তি হবেন এবং পড়াশোনা চালিয়ে যাবেন বলে আশা ব‍্যক্ত করেন।

নুরুন্নাহার বেগম চাতলপাড় ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী আসন ১-২-৩ ওয়ার্ডের দুইবারের নির্বাচিত সদস্য। তিনি ২ সন্তানের জননী। ছেলে তেজগাঁও কলেজে পড়াশোনা করছে এবং মেয়ে নাসরিন এবার মায়ের সঙ্গে এসএসসি পাস করেছেন।

চাতলপাড় ওয়াজ উদ্দিন উচ্চ বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অঞ্জন কুমার বিশ্বাস বলেন, ইউপি সদস্য নুরুন্নাহারকে সবার অনুসরণ করা উচিত। শিক্ষার কোনো বয়স নেই। নুরুন্নাহার তার দৃষ্টান্ত। আমি তার কর্মময় জীবনের সফলতা কামনা করছি।